ব্রেকিং নিউজ ❯
Home / শীর্ষ নিউজ / স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চেয়ে আদালতে আবেদন

স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চেয়ে আদালতে আবেদন

india pakডেস্ক নিউজ:: স্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের আবেদন করে পাক হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন ভারতীয় মহিলার পাকিস্তানি স্বামী।

অভিযোগকারিনী উজমার অভিযোগ, তাঁকে বন্দুকের ভয় দেখিয়ে জোর করে বিয়ে দেওয়া হয়। এমনকী, তিনি স্বামী তাহির আলির বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থারও অভিযোগ করেন। এই প্রসঙ্গে, তাহিরের সাফাই, তিনি স্ত্রীর সঙ্গে সকল ‘ভুল বোঝাবুঝি’ মিটিয়ে নিতে চান।

উজমার অভিযোগ, তাহিরের পরিবার তাঁর সমস্ত নথি বাজেয়াপ্ত করে রেখে দিয়েছে। কোনওমতে সেখান থেকে পালিয়ে উজমা ইসলামাবাদে ভারতীয় হাইকমিশনে আশ্রয় নেন। উজমা জানিয়ে দিয়েছেন, ভারতে ফেরত না যাওয়া পর্যন্ত তিনি সেখানেই থাকবেন।

অন্যদিকে, আদালতে তাহির দাবি করেন, তাঁর স্ত্রীকে জোর করে আটকে রাখা হয়েছে। জানান, তিনি উজমাকে ভালবাসেন। তাঁদের দাম্পত্য জীবন আনন্দময় ছিল। তাঁরা শান্তিতে জীবনযাপন করছিলেন।

তাহিরের আরও দাবি, উজমার ভাই ওয়াসিম এসেই তাঁদের জীবন বিষময় করে তোলেন। ওয়াসিমের জন্যই তাঁদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে বলেও দাবি করেন তাহির। তিনি যোগ করেনস স্ত্রীর সঙ্গে সব ভুল বোঝাবুঝি মেটাতে চান।

এর জন্য উজমার সঙ্গে কোনও খোলামেলা পরিবেশে দেখা করতে চেয়ে আদালতে আবেদন করেন তাহির। সঙ্গে এ-ও জানান, সব আইনি প্রক্রিয়া না মেটা পর্যন্ত আদালত যেন উজমাকে পাকিস্তান ছাড়ার অনুমতি না দেয়।

গত ৮ মে, পাকিস্তানের একটি আদালতে তাহিরের বিরুদ্ধে অভি্যোগ দায়ের করেছিলেন নয়াদিল্লির বাসিন্দা উজমা। ম্যাজিস্ট্রেটের সামনে দেওয়া বয়ানে তিনি দাবি করেছিলেন, তিনি আত্মীয়র সঙ্গে দেখা করতে পাকিস্তানে এসেছিলেন। তাহিরকে বিয়ে করতে নয়। তাঁর দাবি, তাঁর থেকে সমস্ত কাগজপত্র ছিনিয়ে জোর করে বন্দুক ঠেকিয়ে বিয়ে করতে বাধ্য করা হয়।

বিয়ের পর থেকেই, তাঁর ওপর যৌন ও শারীরিক অত্যাচারও চালানো হয় বলে দাবি করেন ২০ বছরের তরুণী। উজমা এ-ও জানান, তিনি জানতেন না, তাহির আগে থেকে বিবাহিত এবং তাঁর চার সন্তান রয়েছে।

যদিও, এদিন আদালতে তাঁর পাল্টা হলফনামায় সব অভিযোগ খারিজ করেন তাহির। তাঁর পাল্টা দাবি, উজমা তাঁকেই বিয়ে করতে এসেছিলেন। জানান, গত ৩ মে জেলা আদালতে সাক্ষীর উপস্থিতিতে তাঁদের বিয়ে হয়।

তাহির এ-ও দাবি করেন, তিনি উজমাকে তাঁর পরিবার সম্পর্কে সবকিছুই জানিয়েছিলেন। তাহির জানান, তিনি যে পরিবার ছেড়ে পাহাড়ে থাকেন, সে কথাও উজমাকে জানিয়েছিলেন। আগামী সোমবার আদালতে শুনানি।

এই ঘটনা দুদেশেই সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। গতকালই পাক প্রধানমন্ত্রীর বিদেশ বিষয়ক উপদেষ্টা সরতাজ আজিজ জানান, আইনি প্রক্রিয়া মিটলেই উজমাকে ভারতে ফেরত পাঠানো হবে। অন্যদিকে, বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র গোপাল বাগলে জানান, উজমা হাই-কমিশনের মধ্যে খুশিতেই আছেন।

http://www.unitednews24.com/wp-content/uploads/2016/08/Untitled-1-copy-1.jpg

About ahm foysal

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*