ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম

     আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডাব্লিউ বুশকে গ্রেফতারের জন্য আফ্রিকার কয়েকটি দেশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

অ্যামনেস্টির আইন বিষয়ক উপদেষ্টা ম্যাট পোলার্ড বলেছেন, যারা বন্দী নির্যাতন আইন ভঙ্গ করেছেন, আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী তাদের জন্য কোনো নিরাপদ জায়গা থাকতে পারে না।

ইথিওপিয়া, তাঞ্জানিয়া এবং জাম্বিয়াকে অবশ্যই এ সুযোগ নিতে হবে এবং বুশ এতদিন ধরে সাবেক প্রেসিডেন্ট হিসেবে যে সুবিধা ভোগ করে এসেছেন তা বতিল করার ব্যবস্থা নিতে হবে।

পোলার্ড আরও বলেন, যুদ্ধাপরাধের জন্য বুশকে বিচারের আওতায় আনতে হবে এবং এ তিনটি দেশকে এ বিষয়ে দায়-দায়িত্ব পালন করতে হবে।

জর্জ বুশ বর্তমানে পাঁচ দিনব্যাপী আফ্রিকা সফরের অংশ হিসেবে জাম্বিয়ায় অবস্থান করছেন। গতকাল তিনি তাঞ্জানিয়া সফর করেছেন এবং আরো পরে তিনি ইথিওপিয়া সফর করবেন।

বুশ আফ্রিকা সফরে গেছেন ক্যান্সার, এইডস এবং ম্যালেরিয়ার মতো ব্যাধির বিরুদ্ধে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে।

এদিকে, অ্যামনেস্টির আহ্বান প্রত্যাখ্যান করে জাম্বিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী চিশিম্বা কাম্বিলি বলেছেন, যেসব দেশ অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের মতো সংগঠন পরিচালনা করে তারাই বুশকে গ্রেফতার করুক।

তিনি আরো বলেন, এসব দেশ বুশের সফরের জন্য অপেক্ষা করুক এবং সময় মতো বুশকে গ্রেফতার করে ফাঁসি দিক।” তিনি প্রশ্ন করেন, কিসের ভিত্তিতে তারা আমাদের ঘাড়ে দায় চাপাতে চাইছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে, গত অক্টোবর মাসে বুশ যখন কানাডা সফরে গিয়েছিলেন তখনও অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বুশকে গ্রেফতারের জন্য কানাডা সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছিল।

২০০২ সাল থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকাকালে বুশ বন্দীদের ওপর অত্যাচার ও নির্যাতনের নিত্য নতুন কৌশল চালু করেছিলেন বলে অ্যমানেস্টি জানিয়েছে।

বিশেষ করে ওই সময় মুসলিম বন্দীদের ওপর কাপড় দিয়ে নাকে গরম পানি ঢালার মতো মানবতাবিরোধী কাজ করে বন্দীদের কাছ থেকে স্বীকারোক্তি আদায়ের জঘন্য প্রথা চালু করেছিলেন।

 

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here