ওরা ৮০জন উপজাতীয় নারী ও পুরুষ। তাদের ঘরে যখন অভাবের তাড়া, সেই সময় সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪০ দিনের কর্মসৃজন কর্মসূচির আওতায় কাজের সুযোগ পেয়ে দু’বেলা খাবার নিশ্চয়তা হয়েছে তারা।

বান্দরবান জেলার রোয়াংছড়ি উপজেলার রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ৪০দিনের কর্মসূচি প্রকল্পের শ্রমিক ও উপজাতীয় গৃহিনী উনুচিং মারমা সাংবাদিকদের বলেন, সদর ইউনিয়নে এই প্রকল্পের আওতায় ৬০জন নারীসহ ৮০জন কর্মহীন অতিদরিদ্র লোক কাজের সুযোগ পেয়েছে। তাই তারা মহাখুশি।

রোয়াংছড়ি সদর ইউপির দুর্গম মংবাই পাড়া ও ঘেরাউ ভেতর পাড়া এলাকায় এই প্রকল্পের ২টি রাসত্মা সরেজমিনে পরিদর্শনকালে নারীসহ ৪০জন শ্রমিকের কাজ দেখে সকলেই সনেত্মাষ প্রকাশ করেছেন। কাজ পরিদর্শনকালে সেখানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকল্প বাসত্মবায়ন কর্মকর্তা তর্পন দেওয়ান, উপজেলা ভাইসচেয়ারম্যান পুহ্লা অং মার্মা, ট্যাগ অফিসার, ইউপি চেয়ারম্যান সাহ্লামং মারমা এবং এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

নারী শ্রমিক মেনুচিং মারমা বলেন, এ কর্মসৃজন কাজের কারণে খাবারের সুযোগ হয়েছে, তারা এর আগে ছিলেন কর্মহীন।

ইউপি চেয়ারম্যান সাহ্লামং মারমা জানান, রোয়াংছড়ি সদর ইউপি’র ৬০জন নারীসহ ৮০জন কর্মহীন অতি দরিদ্র্য লোক কাজের সুযোগ পেয়েছে। গ্রামীণ রাস্তাঘাট উন্নয়ন ছাড়াও এলাকার বিপুল সংখ্যক কর্মহীন উপজাতীয় লোকের কাজের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে।। তিনি বলেন, প্রকল্প এলাকা বাড়ানো গেলে এবং ৪০দিনের স্থলে যদি ১০০ দিন করা যায়, তা হলে পুরো ইউনিয়নের আরও ২ শতাধিক অতি দরিদ্র্য পরিবারের কাজের সংস্থান সৃষ্টি হবে।

রোয়াংছড়ি উপজেলা প্রকল্পবাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) তর্পন দেওয়ান  সনেত্মাষ প্রকাশ করে বলেন, ৪০দিনের কর্মসূচি প্রকল্পের আওতায় রোয়াংছড়ি সদর ইউনিয়নে ৬০ জন নারীসহ ৮০ জন কর্মহীন মানুষের কাজের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বলেন, কাজের সংস্থান ছাড়াও গ্রামীণ রাস্তাঘাটের উন্নয়ন নিশ্চিত হচ্ছে।

ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডট কম/এনামুল হক কাশেমী/বান্দরবান

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here