gang rapeনিউজ ডেস্ক :: উত্তরপ্রদেশের আগ্রায় নারকীয় ধর্ষণের ঘটনা। দ্বিতীয় শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের সময় তার মুখ বন্ধ রাখতে জিভ কামড়ে ছিঁড়ে নিল তার মায়ের এক সম্পর্কিত ভাই। গত মঙ্গলবার আগ্রার নাই কি মান্ডি এলাকায় এই নৃশংস ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় ৩৫ বছরের মনোজ ওরফে সিন্ধিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ৭ বছরের নির্যাতিতা বালিকা বর্তমানে এসএন সেন হাসপাতালে চিকিত্সাধীন।

বালিকার বাবা জানিয়েছেন, অভিযুক্ত তাঁর আত্মীয় এবং প্রায়ই তাঁদের বাড়িতে আসত। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্ত মনোজ গত সোমবার রাতে মত্ত অবস্থায় ওই বালিকার বাড়িতে আসে। খাবার খেয়ে মনোজ বলে, সে টিভি দেখবে। এরপর বাড়ির লোকজন সবাই ঘুমিয়ে পড়েন। মনোজ একা একটি ঘরে টিভি দেখছিল। মাঝরাতে টিভির আওয়াজ অত্যন্ত বেড়ে যায়। মদ্যপের কীর্তি ভেবে বাড়ির কেউ কিছু বলেননি। কিন্তু ওই সময়ই বালিকাটিকে ঘরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করছিল মনোজ।

বালিকা চিত্কার করতে শুরু করলে মনোজ তার জিভের একাংশ কামড়ে ছিঁড়ে নেয়। রক্তাক্ত অবস্থাতেই মনোজ বালিকাটিকে ধর্ষণ করে। এর পর বাবা-মা রক্তাক্ত অবস্থায় মেয়েকে দেখতে পেয়ে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। ততক্ষণে চম্পট দিয়েছে মনোজ।পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে বাড়ির লোকজন। পুলিশ খবর পায় এক বন্ধুর বাড়িতে লুকিয়ে রয়েছে মনোজ। পুলিশ মনোজের বন্ধুকে মনোজকে আটকে রাখতে বলে। তিনি খাবারের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে পুলিশ না আসা পর্যন্ত মনোজকে আটকে রাখেন। পরে পুলিশ গিয়ে মনোজকে গ্রেফতার করে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here