অলংকার গুপ্তা, হাবিপ্রবি::  হাবিপ্রবিয়ান অব ফুলবাড়ি’র উদ্যোগে ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের নিয়ে গঠিত এই সংগঠন।

৯ এপ্রিল (মঙ্গলবার) ফুলবাড়ির সুজাপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের অডিটোরিয়ামে এটি আয়োজিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন হাবিপ্রবির ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক মো. নওশের ওয়ান, রসায়ন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আতিকুল ইসলাম এবং মার্কেটিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শেখ শহীদুজ্জামান শহীদ। আরো উপস্থিত ছিলেন হাবিপ্রবির সাবেক এবং বর্তমান শিক্ষার্থীরা। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন হাবিপ্রবির গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী অলংকার গুপ্তা।

অনুষ্ঠানে আগত হাবিপ্রবির সাবেক শিক্ষার্থীরা কর্মজীবনে তাদের সফলতার গল্প তুলে ধরে ছোটদের উদ্দেশ্যে দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য প্রদান করেন। এবং তাদের অনুজদের যে কোনো প্রয়োজনে পাশে থাকার আশ্বাস দিয়ে বলেন, “এমন আয়োজনের মাধ্যমে আমাদের মাঝে ভ্রাতৃত্ববোধ বাড়বে। পড়াশোনার পাশাপাশি চাকুরি প্রস্তুতি সহ যেকোনো প্রয়োজনে আমরা সর্বদা আমাদের জুনিয়রদের পাশে থাকবো। আগামীতে এই আয়োজন আরো বৃহৎ হবে বলে প্রত্যাশা করি।”

উপস্থিত হাবিপ্রবির মার্কেটিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শেখ শহীদুজ্জামান শহীদ বলেন, “আজকের এই আয়োজন আমাদের শিক্ষার্থীদের পদচারণায় সফল হয়েছে। এই আয়োজন আগামীতে আরো বৃহৎ হবে আরো সুন্দর হবে। আমাদের শিক্ষার্থীরা সফলতার শীর্ষে পৌঁছানোর পাশাপাশি মানবিক মানুষ হবে এটাই আমাদের প্রত্যাশা। আমার চেম্বার প্রতিটি শিক্ষার্থীর জন্য উন্মুক্ত। তারা যেকোনো প্রয়োজনে আসবে, তাদের সহযোগিতা করতে কার্পণ্য করবো না কখনোই।”

রসায়ন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আতিকুল ইসলাম বলেন, “সকলের সহযোগীতায় আজকের এই আয়োজন সফলতা পেয়েছে। আমরা এর ধারাবাহিকতা রক্ষা করে আরো সুন্দর আয়োজন করতে চাই। এছাড়াও শিক্ষার্থীদের যেসব চাওয়া রয়েছে সেগুলো আমরা একত্রিত হয়ে পূরণ করবো। আমার চেম্বারে তোমাদের সবাইকে স্বাগতম জানাচ্ছি। তোমরা যে কোনো প্রয়োজনে যোগাযোগ করতে দ্বীধাগ্রস্থ হবে না।”

হাবিপ্রবির ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক মো. নওশের ওয়ান বলেন, “আজকের এই আয়োজনের মূল উদ্যেশ্যই হলো নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধি করা এবং একে অপরের সাথে পরিচিত হওয়া। আমাদের সামনে উপস্থিত সাবেক শিক্ষার্থীদেরকে তাদের কর্মজীবনে সফল হতে দেখে খুবই ভালো লাগছে। আমাদের শিক্ষার্থীরা সফলতায় আমাদেরকেও ছাড়িয়ে যাবে এই দোয়া করি। তারা একদিন অক্সফোর্ডে গিয়ে শিক্ষকতা করবে এটাই প্রত্যাশা করি। এছাড়াও প্রত্যেককে হতে হবে মানবিক মানুষ। সহযোগিতার মনোভাব প্রত্যেকের মাঝেই রাখতে হবে।”

উল্লেখ্য, প্রতিবছর হাবিপ্রবিয়ার অব ফুলবাড়ি’র উদ্যোগে ইফতার মাহফিল আয়োজিত হয়ে থাকে। এসময় এটি ফুলবাড়ির বর্তমান এবং সাবেক শিক্ষার্থীদের মিলনমেলায় পরিণত হয়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here