ডেস্ক রিপোর্ট :: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের পরিবার সম্পর্কে নেতিবাচক মন্তব্যের প্রতিবাদ ও নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর বিচার দাবিতে কোম্পানিগঞ্জে ডাকা অর্ধদিবস হরতাল ওবায়দুল কাদেরের নির্দেশে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

শনিবার (২৩ জানুয়ারি) বিকেলে এ হরতাল প্রত্যাহার করা হয়।

এদিন সকালে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের পরিবার সম্পর্কে নেতিবাচক মন্তব্যের প্রতিবাদে ও নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর বিচার দাবিতে কোম্পানিগঞ্জে অর্ধদিবস হরতাল ডাকা হয়।

এর আগে শুক্রবার থেকেই অবস্থান ধর্মঘট পালন করে আসছেন ওবায়দুল কাদেরের সমর্থকরা। রাত থেকেই বসুরহাট বঙ্গবন্ধু চত্বরে অবস্থান নেয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনগুলো। কনকনে শীত উপেক্ষা করেই সারারাত একরামুল করিম চৌধুরীকে দল থেকে বহিষ্কার, জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি বাতিল, নোয়াখালীতে অপরাজনীতি, টেন্ডারবাজি, চাকরি বাণিজ্য বন্ধসহ বিভিন্ন দাবিতে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি করছিলেন। এ কর্মসূচি শুরুর ১৭ ঘণ্টা পর শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় অবস্থান ধর্মঘট প্রত্যাহার করেন তারা। এ সময় ঘোষণা দেওয়া হয় অর্ধদিবস হরতালের।

উল্লেখ্য, সদ্য অনুষ্ঠিত বসুরহাট পৌর নির্বাচনকে ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে নোয়াখালীর রাজনীতি। নির্বাচনকে ঘিরে আব্দুল কাদের মির্জা, তার বক্তব্যে একরামুল করিম চৌধুরীর সমালোচনা করেন। এরই প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার রাতে ১১টা ৩২ মিনিটে ব্যক্তিগত ফেসবুকের লাইভে এসে ওবায়দুল কাদেরের পরিবারকে রাজাকার বলে আখ্যায়িত করে ভিডিও পোস্ট করেন একরামুল। তবে কিছুক্ষণ পর সে ভিডিও সরিয়ে ফেললেও তার আগেই তা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here