ব্রেকিং নিউজ

স্যার আবেদ স্মরণে যাত্রা শুরু ইয়াং চেঞ্জমেকারসের

স্টাফ রিপোর্টার :: ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফজলে হাসান আবেদ স্মরণে বিশ্বের পঞ্চম দেশ হিসেবে বাংলাদেশে শুরু হয়েছে অশোকা ইয়াং চেঞ্জমেকারস। বিশ্বব্যাপী বাংলাদেশের যুব সংস্কৃতির নেতৃত্ব গড়ে তুলতে ১৫ তরুণ-তরুণীকে নিয়ে প্রথম দল গঠন করা হয়।

শনিবার রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টারে এ কর্মসূচির উদ্বোধন হয়।

পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে চূড়ান্ত করা ১৫ জনকে নিয়ে শুরু হবে নানা কার্যক্রম। তাদের লক্ষ্যে পৌঁছানো ও সমাজে অবদান রাখার ক্ষেত্রে অবদান রাখবে অশোকা এবং ব্র্যাক। অশোকার ‘এভরিওয়ান এ চেঞ্জমেকার’ কাঠামোর অংশ হিসেবে সংস্থাটির ৯০টি দেশের নেটওয়ার্কের মধ্যে পঞ্চম দেশ হিসেবে বাংলাদেশে এ উদ্যোগ উদ্বোধন করা হয়। অন্য চারটি দেশ হলো যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল, ইন্দোনেশিয়া ও ভারত।

সারাদেশের আবেদনকারীদের মধ্য থেকে ১৫ জনকে চূড়ান্ত করে জুরি বোর্ড। নির্বাচিতরা প্রত্যেকের অবস্থান থেকে নারী ও শিশু অধিকার, স্বাস্থ্যবিধি, মাদকের অপব্যবহার, জলবায়ু পরিবর্তনসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করছে। তারা শুধু সচেতনতা তৈরিতেই কাজ করেননি, সমাজ ও আশপাশের মানুষের জীবনমান উন্নয়নেও ভূমিকা রেখেছেন।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক আসিফ সালেহ বলেন, ‘প্রত্যেক ব্যক্তিকে চেঞ্জমেকারে পরিবর্তন করার প্রতিশ্রুতির মধ্যেই এ উদ্যোগের সম্ভাবনা নিহিত। এর মাধ্যমে স্যার ফজলে হাসান আবেদকে শ্রদ্ধা জানানো হচ্ছে, যার লক্ষ্য ছিল সবার জন্য একটি নতুন বিশ্ব তৈরি এবং বিশ্বজুড়ে চেঞ্জমেকার গড়ে তোলা।’

অশোকা ইয়াং চেঞ্জমেকারসের বৈশ্বিক নির্বাহী পরিচালক যশবীর সিং বলেন, একজন চেঞ্জমেকার নিজের চেয়েও বেশি কাজে আসে সমাজের। তরুণরা যেন জীবনের শুরু থেকেই পরিবর্তন সূচনা করতে পারে, সে লক্ষ্যে অশোকা ও ব্র্যাক আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের নিয়ে কাজ শুরু করেছে। বাংলাদেশের ভবিষ্যতের জন্য এমন একটি ইকোসিস্টেম গড়ে তোলা জরুরি।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, নির্বাচিত তরুণ-তরুণীরা বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্মে পরিচিত হবে, যেখানে তাদের কো-লিডারশিপবিষয়ক বুট ক্যাম্প, মিডিয়া পার্টনারশিপ, পাবলিক স্পিকিং প্ল্যাটফর্ম, এক্সপোজার ভিজিট, কৌশলগত মৈত্রীসহ নানা বিষয়ে জানা ও অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়া হবে। তাদের বাংলাদেশের যুব সংস্কৃতির জন্য ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

বাংলাদেশে অশোকার ৯০ জনের বেশি ফেলো রয়েছেন, যারা অশোকা ফেলোশিপকে সহায়তা দিয়ে আসছেন। অশোকার বাংলাদেশের ফেলোদের মধ্যে রয়েছেন- শাইখ সিরাজ, রুনা খান, অনন্য রায়হান, এজাজ আহমেদ, সাজিদা রহমান, সেবাস্তিয়ান গ্রোহ। ফেলোদের মধ্যে ছিলেন প্রয়াত স্যার ফজলে হাসান আবেদও।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মাসব্যাপী একুশের উন্মুক্ত আলোকচিত্র প্রদর্শনী উদ্বোধন

স্টাফ রিপোর্টার :: আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহীদ দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ শিশু ...