স্ত্রীর সেবায় পাঁচ বছর পর কোমা থেকে জেগে উঠলেন স্বামী!

ডেস্ক নিউজ :: সত্যিকারের ভালোবাসা যে পুরোপুরি হারিয়ে যায়নি কিছু কিছু ঘটনার মাধ্যমে এখনও তার প্রমাণ পাওয়া যায়।

২০১৩ সালে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় মাথায় আঘাত পেয়ে কোমায় চলে যান চীনের হুবেই প্রদেশের জিয়াংইয়াংয়ের বাসিন্দা লি জিহুয়া। সেই থেকে জড়পদার্থের মতো তিনি হাসপাতালের বিছানায় পড়েছিলেন। কিন্তু হাল ছাড়েননি তার স্ত্রী জ্যাং গুইহুয়ান।

টানা পাঁচ বছর দিন-রাত স্বামীর সেবা করেছেন তিনি। সারাদিনে মাত্র ২ থেকে ৩ ঘণ্টা ঘুমিয়ে পুরোটা সময় তিনি ব্যয় করেছেন স্বামীর সেবা-যত্নে। স্বামীকে খাওয়ানো কিংবা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে সচেষ্ট থাকতেন তিনি। ২০১৮ সালে চেতনা ফিরে পান লি। কথা বলার মতো অবস্থায় এসে প্রথমেই তিনি বলে ওঠেন সেই চার শব্দ, ‘স্ত্রী, তোমাকে ভালোবাসি।’ স্বামীর মুখে বাক্যটি শুনে জ্যাং গুইহুয়ান যেন ভুলে যান তার এতদিনের কষ্টের কথা।

লির চিকিৎসক ডা. ওয়ান কুইনগান বলেন, ‘ দুর্ঘটনার পর লিকে যখন প্রথমে হাসপাতালে আনা হয় তখন সে একটা জড়পদার্থের মতো ছিল। কোনো কিছুতেই সে সাড়া দিচ্ছিল না।’

লির স্ত্রী জ্যাং বলেন, ‘ চিকিৎসক আমাকে বলেছিলেন লিকে সারিয়ে তোলা অসম্ভব।’ তিনি জানান, চিকিৎসকদের কথা তিনি বিশ্বাস করতে পারেননি।তাদেরকে ভুল প্রমাণিত করতে রাত-দিন স্বামীর যত্ন করেছেন।

জ্যাং সেবা-যত্নের পাশাপাশি স্বামীর সঙ্গে অনর্গল কথা বলতেন।স্বামীকে তার প্রিয় গানগুলোও শোনাতেন। ডা. ওয়ান জানান, লির জ্ঞান ফেরাতে তার স্ত্রীর এই কাজগুলো সাহায্য করেছে। স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসার জন্য এখনও হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন লি। এখন তিনি হাঁটাচলা করতে পারেন সাহায্য নিয়ে।জ্যাং বলেন, ‘ আমি কখনও স্বামীকে ছেড়ে চলে যাওয়ার কথা ভাবিনি। যতদিন সে বেঁচে থাকবে, ততদিন আমি তার সেবা করবো।’

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

নিলামে

একদিনের জন্য নিলামে কিনতে পারবেন সুন্দরী বউ!

ডেস্ক নিউজ :: আমস্টারডাম নেদারল্যান্ডের রাজধানী ও অন্যতম প্রধান শহর। সম্প্রতি নতুন ...