বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক থেকে :: যুক্তরাষ্ট্রে পুলিশের নির্যাতনে নিহত জর্জ ফ্লয়েডের নামে গোফান্ডমি পেজে খোলা একটি তহবিলে মাত্র ছয়দিনেই ১ কোটি মার্কিন ডলারের বেশি জমা হয়েছে। মাত্র ১৫ লাখ ডলারের লক্ষ্য নিয়ে খোলা হলেও তহবিলটিতে বুধবার দুপুর পর্যন্ত জমা হয়েছে ১ কোটি ১২ লাখ ২৭ হাজার ৩০০ ডলার।

‘অফিসিয়াল জর্জ ফ্লয়েড মেমোরিয়াল ফান্ড’ নামে তহবিলটি খুলেছিলেন জর্জের ভাই ফিলোনাইজ ফ্লয়েড। এতে সংগৃহীত অর্থ জর্জের শেষকৃত্য, মামলা পরিচালনা, পরিবারের সদস্যদের মানসিক পরিচর্যা এবং দুই সন্তানের ভরণপোষণ ও শিক্ষায় ব্যয় করা হবে।

জর্জ ফ্লয়েডের নামে ওই তহবিলে এ পর্যন্ত বিভিন্ন অংকে অর্থ দান করেছেন ৪ লাখ ৩০ হাজার ৭০০ জন। পেজটি সাড়া ফেলেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও, শেয়ার হয়েছে আড়াই লাখেরও বেশি।

যারা জর্জ ফ্লয়েডের পরিবারের সহায়তায় এগিয়ে এসেছেন তাদের সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়েছেন তার ভাই।

এদিকে, গোফান্ডমি পেজে ‘জর্জ ফ্লয়েড (বিগফ্লয়েড) নামে আরেকটি তহবিল খুলেছেন মৃতের বোন ব্রিগেট। সেখানেও তিন লাখ ডলারের বেশি জমা হয়েছে। এছাড়া জর্জের মেয়ে জিয়ানার (অফিসিয়াল জিয়ানা ফ্লয়েড ফান্ড) নামে খোলা আরেকটি তহবিলে জমা হয়েছে প্রায় পাঁচ লাখ ডলার।

গত ২৫ মে যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়াপোলিস শহরে পুলিশি হেফাজতে মারা যান জর্জ ফ্লয়েড। প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতারের সময় কোনও ধরনের বাধা না দিলেও তার ঘাড়ে পা দিয়ে দীর্ঘসময় চেপে রাখেন এক শ্বেতাঙ্গ পুলিশ। এসময় জর্জ বারবার ‘আমি নিঃশ্বাস নিতে পারছি না’ বলে কাতরালেও মন গলেনি ওই পুলিশ কর্মকর্তার। এভাবে প্রায় আট মিনিট চেপে রাখা হয় তাকে। পরে মারা যান জর্জ।

এ ঘটনায় এক প্রত্যক্ষদর্শীর ধারণ করা ভিডিও মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে সবখানে। এর পরপরই রাস্তায় নেমে আসেন হাজার হাজার মানুষ। যুক্তরাষ্ট্রের এই বিক্ষোভের আগুন ছড়িয়ে পড়েছে বিভিন্ন দেশে। অশ্বেতাঙ্গদের অধিকার সুরক্ষায় সরব হয়েছে বিশ্ববাসী।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here