সেই বাঁশঝাড়ে সকল কার্যক্রম বন্ধ করে দিল প্রশাসন

ডেস্ক রিপোর্টঃঃ  কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলায় বাঁশঝাড়ের ভেতরে নির্দিষ্ট একটি জায়গায় দুই ঘণ্টা পানির বোতল রেখে সেই পানি পান করলেই অসুস্থ মানুষ সুস্থ হয়ে যাচ্ছে- এমন গুজবে দৌলতপুর ইউনিয়নের পচামাদিয়া গ্রামের হাইস্কুল পাড়ার নির্জন একটা বাঁশঝাড়ে শত শত মানুষ জড়ো করে প্রতারণা করা হচ্ছিল। আলোচিত সেই বাঁশঝাড়ে পানির বোতল রাখাসহ তাদের সকল কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেন দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আব্দুল জব্বার।

গতকাল সোমবার (১৬ জানুয়ারি) ” বাঁশঝারে পানির বোতল রাখতে মানুষের ভিড়”  শিরোনামে জনপ্রিয় নিউজ পোর্টাল ঢাকা পোস্টে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। বিষয়টি জানতে পেরে দৌলতপুর  উপজেলা প্রশাসন সেই বাঁশঝাড়ে পানির বোতল রাখাসহ তাদের সকল কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দেন।

জানা গেছে, গত তিন-চার মাস আগে থেকে প্রতি সপ্তাহের শনিবার ও মঙ্গলবার বিকেল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত রোগমুক্তির আশায় দূর-দূরান্ত থেকে অসংখ্য মানুষ এসে সেখানে ভিড় করছিল। বাঁশঝাড়ে মানুষ জড়ো করে একটি চক্র প্রতারণা করছিল। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়।

পানির বোতল রাখা বন্ধ হওয়ার খবরে স্থানীয়দের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। প্রশাসনের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে সচেতন মহল।

স্থানীয়রা বলেন, বাঁশঝাড়ে পানির বোতল রাখা বন্ধ করে দেওয়ায় খুব ভালো হয়েছে। গুজবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করায় স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনকে ধন্যবাদ। এ ঘটনায় স্থানীয় মানুষদের মধ্যেও প্রভাব পড়ছিল। প্রশাসন প্রতারক চক্রের কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়ে মানুষদের রক্ষা করেছে। কারণ বাঁশঝাড়ের নিচে পানি রেখে খেলে মানুষ সুস্থ হয়ে যাচ্ছে- এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা। অতি উৎসাহী হয়ে মানুষ ভিড় করছে সেখানে। সেখানে অলৌকিক কিছু নেই।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক চক্রটির এক সদস্য বলেন, আজ সকালে বাঁশঝাড়ের মালিক খাইরুল ইসলামকে সকল কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন ইউএনও। আমারা দূর-দূরান্ত থেকে আসা মানুষদের ফিরিয়ে দিচ্ছি। আজ থেকে পানি রাখা বন্ধ। আমার কোনো দোষ নেই। আমি শুধু মানুষদের সহযোগিতা করতাম।

দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আব্দুল জব্বার বলেন, বাঁশঝাড়ে পানির বোতল রেখে সেই পানি পান করলেই অসুস্থ মানুষ সুস্থ হচ্ছে- এমন খবর ছড়িয়ে মানুষ জড়ো করা হচ্ছিল। খবরটি জানার পর বিষয়টি তদন্ত করা হয়। আজ সেই বাঁশঝাড়ে পানির বোতল রাখাসহ তাদের সকল কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here