ব্রেকিং নিউজ

সুবর্ণচরে পৃথক ঘটনায় দুই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

দুই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

মুজাহিদুল ইসলাম সোহেল, নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলী ইউনিয়ন থেকে পৃথক ঘটনায় দুই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এদের মধ্যে পপি আক্তার নামের একজনকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ রয়েছে। ঘটনায় নিহতের স্বামী আবু তাহের (২৬) কে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার সকালে নিহতদের লাশ দুইটি ময়না তদন্তের জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতরা হচ্ছেন চরজুবলী ইউনিয়নের মধ্যম বাগ্যা গ্রামের আবু তাহেরের স্ত্রী পপি আক্তার (২৪) ও উত্তর কচ্ছপিয়া গ্রামের নাছির উদ্দিনের মেয়ে লুবনা আক্তার (১৯)

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় গত চার বছর আগে আবু তাহেরের সাথে পশ্চিম চরজুবলী গ্রামের হাজী আব্দুস সোবহানের মেয়ে পপি আক্তারের বিয়ে হয়। তাদের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। শুক্রবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে পপি আক্তারের কক্ষ থেকে তার লাশ উদ্ধার ও নিহতের স্বামীকে আটক করে পুলিশ।

নিহতের পরিবারের অভিযোগ পপির স্বামী আবু তাহের, শ্বাশুড়ী ও ননদ মিলে তাঁকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে। তবে পুলিশ বলছে ময়নাতদন্ত ছাড়া হত্যার কারণ বলা যাচ্ছেনা। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিহতের স্বামীকে আটক করা হয়েছে।

এদিকে গত এক বছর আগে এক প্রবাসীর সাথে মোবাইলে বিয়ে হয় লুবনার। বিয়ের পর থেকে সে বাবার বাড়ীতে থাকতো।এই রমজানের ঈদে দেশে এসে তাকে বিয়ের কাজ শেষ করার কথা ছিলো। শুক্রবার দিবাগত রাত ১০টার দিকে উত্তর কচ্ছপিয়া গ্রামে অলংকার হারানোকে কেন্দ্র করে ছোট বোন লাভলি আক্তারের সাথে বাকবির্তকের জেরে বিষ প্রাণ করে লুবনা আক্তার। পরে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহেদ উদ্দিন জানান, নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। গৃহবধূ পপি আক্তার নিহতের ঘটনায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ ফেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আর্ন্তজাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা

রফিকুল ইসলাম ফুলাল দিনাজপুর প্রতিনিধি :: ৯ আগষ্ট আর্ন্তজাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপন ...