মুজাহিদুল ইসলাম সোহেল, নোয়াখালী প্রতিনিধি ::

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে ডাকাতির প্রস্তুতির সময় অস্ত্রসহ ৯ ডাকাতকে গ্রেপ্তার করেছে চরজব্বার থানা-পুলিশ। গতকাল শনিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে উপজেলার চর আমান উল্যা ইউনিয়নের চর বজলুল করিম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) মোহাম্মদ ইব্রাহিম আজ রোববার দুপুরে চরজব্বার থানায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

গ্রেপ্তারকৃত আসামিরা হলেন, মোসলে উদ্দিন (২৩), মারুফ হোসেন হৃদয় (২২), শাহাদাত হোসেন সাগর (২৪), মো. সোহেল (২৫), মো. মিঠু (২৪), মো. রায়হান (২২), মীর সাব্বির (২২), মো. শিমুল (২২) ও নাজমুল ইসলাম (২৫)। তারা বেগমগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা।

এ সময় আসামিদের কাছ থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র, একটি ধারালো ছুরি, একটি লোহার দা, দুইটি গ্রিল কাটার, দুইটি লোহার রড, দুটি লোহার পাইপসহ ডাকাতিতে ব্যবহার করা হতো এমন বিভিন্ন সরঞ্জাম ও একটি পিকআপ জব্দ করা হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো ইব্রাহিম বলেন, রাত দেড়টার সময় চরজব্বর থানা এলাকায় টহল পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে ১২-১৩ জনের একটি সশস্ত্র ডাকাত দল ডাকাতির জন্য চরআমান উল্যাহ ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ড চরবজলুল করিম গ্রামের রফিকের পরিত্যক্ত ফ্যাক্টরির সামনে রাস্তার ওপর জড়ো হয়েছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে উপপরিদর্শক মো. কামাল হোসেন ও পুলিশ সদস্যরা সেখানে অভিযান চালায়।
এই পুলিশ কর্মকর্তা আরও জানান, ওই সময় ডাকাতি প্রস্তুতির সময় নয়জনকে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তাদের সঙ্গে থাকা অজ্ঞাত ৩-৪ জন পালিয়ে যায়। আসামিদের ব্যবহৃত একটি নীল রঙের মিনি পিকআপ গাড়িও জব্দ করা হয়। এদের মধ্যে মোসলে উদ্দিনের থেকে একটি পিস্তল সদৃশ দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, আটককৃত ডাকাতদের অনেকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক ডাকাতি অস্ত্র ও মামলা রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ডাকাতি প্রস্তুতি ও অস্ত্র আইনে মামলা রুজু করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here