সুপারকম্পিউটার তৈরির পরিকল্পনা করছে যুক্তরাষ্ট্র

সুপার কম্পিউটারবাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক থেকে :: যুক্তরাষ্ট্র শিঘ্রই সুপারকম্পিউটার তৈরির কাজ শুরু করবে। বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী সুপারকম্পিউটার চীনের তিয়ানহে-২ থেকে তিনগুণ বেশি গতিসম্পন্ন দুটি সুপারকম্পিউটার তৈরির পরিকল্পনা করেছে। পাশাপাশি সুপারকম্পিউটার প্রযুক্তির সর্বোচ্চ পর্যায়ের গবেষণার পরিকল্পনাও করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

 

শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানিমন্ত্রি আর্নেষ্ট মোনিজ এ পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেছেন।

এ লক্ষ্যে ৪২ কোটি ৫০ লাখ ডলার বরাদ্দের ঘোষণা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র সরকার। যুক্তরাষ্ট্র জ্বালানি বিভাগের (ডিওই) টেনেসির ওকরিজ জাতীয় গবেষণাগারে “সামিট” ও ক্যালিফোর্নিয়ার লরেন্স লিভারমোর গবেষণাগারে “সিয়েরা” নামের বিশ্বের সর্বোচ্চ গতির সুপারকম্পিউটার দুটি তৈরি করা হবে।

 

এ দুটি সুপারকম্পিউটার তৈরির জন্য ৩২ কোটি ৫০ লাখ ডলার বিনিয়োগ করবে যুক্তরাষ্ট্র সরকার, এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন মোনিজ। ফাস্টফরোয়ার্ড ২ নামের সর্বোচ্চ পর্যায়ের সুপারকম্পিউটার প্রযুক্তির গবেষণা ও উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য আরো ১০ কোটি ডলার ব্যায় করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

 

মোনিজ বলেছেন, “যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিদ্বন্দ্বিতার সক্ষমতা বজায় রাখতে এবং অর্থনৈতিক ও জাতীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ক্ষেত্রে উচ্চ গতির গণনা (এইচপিসি) উপকরণ অত্যাবশ্যক।” ডিওই’র ভাষ্য অনুযায়ী, সামিট ও সিয়েরা যুক্তরাষ্ট্রে বর্তমান সর্বোচ্চ ক্ষমতার সুপারকম্পিউটার টাইটান থেকে পাঁচ থেকে সাত গুণ বেশি ক্ষমতাসম্পন্ন হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দুই সংস্করণে ওএস আনছে হুয়াওয়ে

নিউজ ডেস্ক :: মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কারণে ভবিষ্যতে গুগলের অ্যানড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারে ...