মোঃ আল জাবেদ সরকার:: রবিবার ০৬ জুন ২০২১ এ ভোলায় (ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন অব দি রুরাল পূয়র-ডরপ) এর মা সংসদ ও নাগরিক কমিটি যৌথ উদ্যোগে ২০২১-২০২২ অর্থবছরের বাজেট প্রতিক্রিয়ায় মা সংসদ ও নাগরিক কমিটির সদস্যরা নিম্নস্তরের তামাক কর না বাড়ায় হতাশা ব্যাক্ত করেন ।

আলোচনায় নাগরিক কমিটির সহ সভাপতি প্রফেসর রুহুল আমীন জাহাঙ্গির বলেন, সিগারেট, বিড়ি ও গুল জর্দার দাম অপরিবর্তিত থাকায় কিশোর তরুন এবং গরিব সমাজে আসঙ্কাজনক হারে তামাকপণ্যের ব্যাবহার বেড়ে যাবে। এতে করে দরিদ্র পরিবারগুলো আরো দরিদ্রসীমার নিচে চলে যাবে।

ডর্‌প মা সংসদ এর সদস্য বিলকিস জাহান মুন বলেন, সরকার তামাকের দাম না বাড়ানোতে আমাদের স্বামী এবং সন্তানেরা আরো বেশি তামাক সেবনে উৎসাহিত হবে। আমাদের পরিবারের আয়ের বড় একটা অংশ তামাক কিনতে খরচ করে ফেলেবে। তাই আমাদের জোর দাবি সরকার তামাক পণ্যের কর পুর্নবিবেচনা করে তামাক পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি করতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহন করবেন। এতে করে আমাদের সন্তানেরা ভয়াবহ ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাবে।

উল্ল্যেখ্য, ‘প্রস্তাবিত বাজেটে নিম্ন ও মধ্যম স্তরের সিগারেটের দাম ও শুল্ক অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। উচ্চ এবং প্রিমিয়াম স্তরে ১০ শলাকা সিগারেটের দাম যথাক্রমে ৫ টাকা (৫.২%) এবং ৭ টাকা (৫.৫%) বৃদ্ধি করে ১০২ টাকা এবং ১৩৫ টাকা প্রস্তাব করা হয়েছে এবং উভয় স্তরেই ৬৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক বহাল রাখা হয়েছে। এর ফলে উচ্চ এবং প্রিমিয়াম স্তরে শলাকাপ্রতি সিগারেটের দাম বাড়বে যথাক্রমে ৫০ পয়সা ও ৭০ পয়সা, যা মাথাপিছু আয় বৃদ্ধির তুলনায় অতি নগণ্য। ।

তামাকবিরোধীদের দাবি অনুযায়ী মূল্য স্তরভিত্তিক সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ না করায় সরকার অতিরিক্ত ৩ হাজার ৪০০ কোটি টাকা রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হবে। তামাক কোম্পানিগুলোর আয় বাড়বে এবং তারা তামাকপণ্য বিক্রিতে আরো উৎসাহিত হবে, যা অত্যন্ত হতাশাজনক ও উদ্বেগজনক।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here