জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :: বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন এমপি হেফাজত ইসলাম ও মামুনুল হককে চ্যালেঞ্জ করে বলেছেন, সারা বাংলাদেশে জেলায় জেলায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ করা হবে আপনারা পারলে ঠেকায়েন।

তিনি আরো বলেন, ৭১ এর পরাজিত শক্তি ও পাকিস্তানের দোসর জামায়াত শিবির এখন হেফাজত ইসলামে ভিড় জমিয়েছে, সারা বিশ্বে ভাস্কর্য থাকলেও তারা ধর্ম নিয়ে বাংলাদেশে ব্যবসায় নেমেছে। আমরাও নামাজ পড়ি, কালিমা জানিনারে আমরাও মুসলমান কিন্তু আমরা ধর্ম নিয়ে ব্যবসা করিনা। আপনাদের এসব ব্যবসা বন্ধ করুন তা-নাহলে সারা বাংলাদেশে যুবলীগ মাঠে নামলে পালাবার জায়গা পাবেননা।

নিক্সন চৌধুরী আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সোনার বাংলা গঠনে লাখো কোটি জনতা বুকের তাজা রক্ত দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে অক্ষুন্ন রাখতে প্রস্তুত রয়েছে। আগের যুবলীগ আর এখনকার যুবলীগ এক নয়। রাজাকারের সন্তান, অনুপ্রবেশকারী, চাঁদাবাজদের ঠাই নেই বর্তমান যুবলীগে। শেখ হাসিনা ছাড়া কোন এমপি মন্ত্রীর পেছনে হেঁটে যুবলীগের নেতা হওয়া যাবেনা। সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে শেখ হাসনার হাতকে শক্তিশালী করার আহবান জানান দেশের আলোচিত এ এমপি।

কেন্দ্রীয় যুবলীগের কমিটিতে স্থান পাওয়া লক্ষ্মীপুর জেলার ১০ নেতাকে দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

শনিবার সন্ধ্যায় জেলা যুবলীগ আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে জেলা যুবলীগের সভাপতি এ কে এম সালাহ উদ্দিন টিপুর সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য হারুনুর রশিদ।

জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল নোমান এর সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু, পৌর মেয়র আবু তাহের, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মঞ্জুর আলম শাহীন, তাজ উদ্দিন আহমদ, মোয়াজ্জেম হোসেন প্রমুখ।

সংবর্ধিত অতিথি ছিলেন যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য হাবিবুর রহমান পবন, উপ-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক শামছুল ইসলাম পাটোয়ারী, উপ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দা সানজিদা সারমিন, সহ-সম্পাদক এডভোকেট জয়নাল আবদীন চৌধুরী রিগ্যান, কার্যনির্বাহী সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোক্তার হোসেন চৌধুরী কামাল, এডভোকেট মো. শওকত হায়াত, সদস্য মোজাম্মেল হোসেন, এ বি এম শেখ ফরিদ জীবন, আশফাক আহমদ চৌধুরী, জহিরুল আমিন জহির।

এর আগে বিকেলে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা সহকারে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আগাত অতিথি ও সংবর্ধিত নেতাদের অভ্যর্থনা জানিয়ে মঞ্চে নিয়ে আসেন যুবলীগের নেতাকর্মীরা। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জেলা যুবলীগের কয়েক হাজার নেতাকর্মী অংশনেন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here