ব্রেকিং নিউজ

সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে ঈদের উপহার সামগ্রী পেল গাইবান্ধার ২০০ খেলোয়াড়


মো. রওশন আলম পাপুল, গাইবান্ধা প্রতিনিধি :: দিনাজপুর বিকেএসপি আঞ্চলিক প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত উপপরিচালক ও ক্রিকেটের চীফ কোচ মো. আখিনুর জামান রুশোর উদ্যোগে গাইবান্ধায় ২০০ খেলোয়াড়কে ঈদের উপহারসামগ্রী দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে জেলা শহরের সার্কুলার রোডের মধ্যপাড়ায় অসচ্ছল ও করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন সাবেক ও বর্তমান খেলোয়াড়দের এই উপহারসামগ্রী দেওয়া হয়। দ্যা সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে ও গাইবান্ধার ক্রিকেট প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট একাডেমির সহযোগিতায় এই উপহারসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

উপহারসামগ্রীর মধ্যে ছিল চাল, ডাল, সয়াবিন তেল, লবণ, ছোলা, চিনি, সেমাই, পেঁয়াজ, বুটের ডাল, আটা ও গুড়া দুধ।

এসব উপহারসামগ্রী বিতরণ করেন গাইবান্ধা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলন, ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট একাডেমির (টিএইচসিএ) উপদেষ্টা প্রমতোষ সাহা, সভাপতি মমতাজুর রহমান বাবু, সাধারণ সম্পাদক আসাদুল হাবিব সুজন, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রতিক সাহা দ্বীপ, প্রচার সম্পাদক আহসান হাবীব প্লাবন ও কোষাধ্যক্ষ ওয়াহিদ মুরাদ লিমন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন টিএইচসিএ’র উপদেষ্টা অভিজিৎ রায় পার্থ, বাপ্পা সাহা, আবেদ মাসুম, সহ-সভাপতি পলিন খান ও শহিদুল ইসলাম রনি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সরফরাজ খান টিটু ও সদস্য মাহামুদুল হাসান মিঠু প্রমুখ।

ঈদের আগে এসব উপহারসাগ্রী পেয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন সাবেক ও বর্তমান অর্থসংকটে ভোগা এসব খেলোয়াড়রা। তারা বলেন, প্রায় দুই মাস ধরে করোনার এই সংকটকালীন সময়ে খেয়ে না খেয়ে অর্থসংকটে ভুগছিলাম। অনেকের কাছে ঋণ চেয়েও পাইনি। বিপদের এই সময়ে দ্যা সাকিব আল হাসান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে সহায়তা পেয়ে খুবই উপকার হলো। এজন্য তাকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান এসব খেলোয়াড়রা।

গাইবান্ধার ট্যালেন্ট হান্ট ক্রিকেট একাডেমির সাংগঠনিক সম্পাদক প্রতিক সাহা দ্বীপ বলেন, দীর্ঘদিন যাবত বিকেএসপির কোচ হিসেবে সততা এবং সম্মানের সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন গাইবান্ধার সন্তান মো. আখিনুর জামান রুশো। তার দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে বিশ্বের এক নম্বর অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানসহ মুশফিকুর রহিম, নাসির উদ্দিন, নাইম ইসলাম, সৌম্য সরকার, এনামুল হক বিজয়, লিটন দাস, মমিনুল ইসলাম, শামসুর রহমান শুভ, আরিফুল ইসলাম ও আফিফ হোসেনসহ অসংখ্য আন্তর্জাতিক মানের ক্রিকেটার তৈরি হয়েছেন। সাকিব আল হাসান ছাত্র হওয়ার কারণে মো. আখিনুর জামান রুশো তাকে করোনার এই দুর্যোগকালীন ও ঈদের সময়ে অসচ্ছল ও কর্মহীন খেলোয়াড়দের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান। তার এই আহবানে সাড়া দিয়ে সাকিব আল হাসান তার নিজ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

এবার পুত্রের বাবা হলেন আশরাফুল

স্টাফ রিপোর্টার :: বাংলাদেশের লিটল মাস্টার খ্যাত সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুলের ঘরে ...