সহিংস অনলাইন গেম পাবজি বন্ধ করুন

পাবজি গেম

রবীন্দ্র নাথ পাল :: আমাদের ভবিষৎ প্রজন্মকে বাঁচাতে অবিলম্বে অনলইন সহিংস পাবজি গেম বন্ধ করে দেয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি তথ্য ও যোগাযোগ অধিদপ্তরকে। গত ১৩ই এপ্রিল নেপাল সরকার সহিংস অনলাইন গেম পাবজি বন্ধ করে দিয়েছে বলে এএফপির সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

সম্প্রতি ময়মনসিংহ শহরের সপ্তম থেকে আই এ পড়ুয়া অধিকাংশ শিক্ষার্থী স্কুল-কলেজ ফাঁকি দিয়ে অথবা কোচিং এ পড়ার নাম করে পার্ক অথবা কোন বন্ধুর খালী বাসায় এ খেলার নেশায় মেতে আছে। অনেকে আবার সারারাত জেগে এ খেলায় মত্ত থেকে উচ্ছন্নে যাচ্ছে। প্রায় স্কুলেই দেখা যায়,ছাত্র-ছাত্রীরা কোচিং সেন্টারে পড়ার নামে সহিংস পাবজি গেমে মেতে আছে। পাবজি গেমে আছে, একটি নির্জন দ্বীপে অন্যদের হত্যা করে নিজেকে টিকে থাকতে হয়। শেষ পর্যন্ত যে ব্যাক্তি বা দল জীবিত থাকে,সেই বিজয়ী হয়।পাবজি গেম এর পুরো নাম হলো প্লেয়ার আননোন’স ব্যাটল গ্রাউন্ডস।

একাধিক ব্যক্তি মিলে খেলতে হয়। সমাজে নৃশংসতা ছড়াচ্ছে বলে বর্তমান সময়ে অন্যতম জনপ্রিয় এ গেম নেপাল সরকার ১৩ই এপ্রিল নিষিদ্ধ করেছে। নেপালের আগে ভারতের গুজরাটে পাবজি গেম খেলার উপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছিল। কয়েকজনকে গ্রেফতার ও করেছিল। ২০১৭ সালে এ গেমটি চালু হবার পর থেকে এখন পর্যন্ত ১০ কোটিরও বেশীবার ডাউনলোড করা হয়েছে ।

এদিকে ১৬ এপ্রিল বোম্বের হাইকোর্ট কেন্দ্রীয় সরকারকে পাবজি গেম নিষিদ্ধ করতে প্রয়োজনীয় নির্দেশ দিয়েছে। একটি জনস্বার্থ মামলার পেক্ষিতে বোম্বের হাইকোর্ট এ নির্দেশ দিয়েছে। ১১ বছরের নিজাম নামে এক কিশোর তার মায়ের মাধ্যমে বম্বে হাইকোর্টে পাবজি গেম নিষিদ্ধ করার আবেদন জানায়। তারই প্রেক্ষিতে বম্বে হাইকোর্ট কেন্দ্রীয় সরকারকে এ নির্দেশ দিয়েছে।

সম্প্রতি দেখা যায় পাবজি গেম খেলা নিয়ে দশম শ্রেণীর এক ছাত্র দামী মোবাইল কিনে দেবার জন্য বেশ কিছুদিন যাবৎ বাবা মা’কে মারধর করছে। এ বিষয়ে ময়মনসিংহ কোতোয়ালী থানাকেও বিষয়টি অবহিত করা হয়। আর ঐ ছেলের বন্ধুরা দামী মোবাইল কিনে দেয়ার জন্য ঐ ছেলেকে মেসেজ পাঠায় তার মা -বাবাকে-যেন মারপিট করে। ঘরে অশান্তি সৃষ্টি করে। ভাংচুর করে। তাহলেই দামী মোবাইল কিনে দেবে এবং সে খেলতে পারবে।

আপনারা লক্ষ্য করলে দেখবেন স্কুল কলেজের ৩/৪ বন্ধু মিলে মাথা নিচু করে এ গেম খেলায় মত্ত রয়েছে। স্কুলের শিক্ষকের দৃষ্টি আকর্ষন করলে,শিক্ষকরা জানান, আমরা নিষেধ করলেও মোবাইল নিয়ে শিক্ষার্থীরা স্কুলে আসে। গার্জিয়ানকে ডেকে মোবাইল দিতে নিষেধও করেছি। কোন কাজ হয়নি। তাছাড়া আমরাতো আর ছাত্রদের মারপিট করতে পারিনা। তাহলেতো আমাদের চাকুরীই থাকবে না। শাসন ছেলেরা মানতেই চায় না।

পাবজি গেম সমাজে অশান্তি ও নৃশংসতা ছড়াচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়কে অনুরোধ জানাচ্ছি, বিশ্বাস না হলে আপনারা নিজে এ গেমটি দেখে যদি উপযুক্ত মনে করেন, তবে খুব দ্রুত বন্ধ করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

 

 

 

 

লেখক: বার্তা সম্পাদক, দৈনিক আজকের বাংলাদেশ, ময়মনসিংহ। ইমেইল: azkerbangladesh@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মোহাম্মদ যোবায়ের হাসান

জার্মানিতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এসডব্লিউএ -এর পরিচালনা সংসদের সভা

স্টাফ রিপোর্টার :: প্রায় দুইশতাধিক সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, সংগঠন, নেটওয়ার্ক ও জোটের আন্তর্জাতিক ...