সংবিধান সংশোধনীর জন্য সবার মত নিতে হবে: ড. কামাল

স্টাফ রিপোর্টার :: বিশিষ্ট আইনজীবী ও সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, বিচার বিভাগ সংবিধানের একটি অংশ। এর ওপর আঘাত এলে সংবিধানের ওপর আঘাত পড়বে। সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা আছে বলে চার মিনিটে বিচার বিভাগ ও সংবিধানের কোনো কিছু পরিবর্তন করবেন, এটা কি গণতান্ত্রিক দেশ?

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাব কনফারেন্স লাউঞ্জে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) আয়োজিত ‘সংবিধান সংশোধন, বিচারপতিদের অভিশংসন’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

গোলটেবিল আলোচনায় সুজন চেয়ারম্যান ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা এম হাফিজ উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য দেন- কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, সুজন সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, অধ্যাপক দিলারা চৌধরী, বিশিষ্ট সাংবাদিক মিজানুর রহমান খান প্রমুখ।

গোলটেবিল বৈঠকে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ড. বদিউল আলম মজুমদার।

কামাল হোসেন বলেন, সংশোধন করা উচিত ছিল বিচারপতি নিয়োগপদ্ধতি পরিবর্তন করার জন্য। কিন্তু সরকার তা না করে বিচারপতিদের অভিশংসন করা যায় তার আইন করেছে।

তিনি বলেন, ৭২ সালে যে সংবিধান ছিল তাতে বলা হয়েছিল সবকিছু নিরপেক্ষভাবে চলবে। এই বিচারপতিদের অভিশংসন কি নিরপেক্ষ হয়েছে? তাহলে তো সেই ৭২ সালের পূর্বে অবস্থায় চলে যাচ্ছে।

গণফোরামের সভাপতি বলেন, কেবিনেট বলে দিল আর তা পাস হয়ে গেল এটি কোনো গণতন্ত্র না। আমরা চাই এটির জন্য দীর্ঘ আলোচনা হবে, জাতীয় সংলাপ হবে, বির্তক হবে, বিশেষজ্ঞরা মতামত দেবে-এটাই হলো গণতন্ত্র।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

৭৭ কোটি প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ নিরক্ষর: জাতিসংঘ

ডেস্ক নিউজ :: বর্তমান শিক্ষা ক্ষেত্রে একটি ‍‘উদ্বেগজনক’ সংকট রয়েছে উল্লেখ করে ...