জাহিদুর রহমান তারিক, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ::

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার ১৫নং ফুলহরি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে জয় পেয়েছেন ১ নং সংরক্ষিত মহিলা ওয়াডের্র সদস্য তৃতীয় লিঙ্গের শম্পা খাতুন পপি। তিনি হেলিকপ্টার প্রতীক নিয়ে ২ হাজার ১০১ ভোট পেয়েছেন । বুধবার ৫ম ধাপের ইউপি নির্বাচনে ফুলহরি ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দিতা করে অপর দুই জনকে বড় ব্যবধানে হারিয়েছেন তিনি।

উপজেলা নির্বাচন অফিসের তথ্যমতে জানা যায়, মাগুরার শালিখা উপজেলার আড়পাড়া গ্রামের রুহুল আমিন খন্দকারের ৪র্থ সন্তান শম্পা খাতুন পপি। ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার ফুলহরি গ্রামের আব্দুল আমিন রাসেলের সাথে ২০১৩ সালে বিয়ে হয় তার। প্রথম দিকে রাসেলের পরিবারের সদস্যরা তার সাথে ভালো আচরণ করলেও কিছুদিন পর শুরু হয় মারধর ও নির্যাতন। গত বছর তাকে তালাক দেয় রাসেল। তবুও ফুলহরি থেকে মানুষের সেবা করে আসছিলেন তিনি। তিনি বলেছেন, তাকে নানারকম ভয়ভীতি দেখানো হয়েছিল, কিন্তু তিনি তাতে দমে যান নি। জনগণ তাকে ভালোবাসার প্রতিদান দিয়েছে। ’’প্রথম প্রথম আমার ভালোই যাচ্ছিল। কিন্তু নির্বাচন যখন ঘনিয়ে এলো, তখন আমার ওপর খুব অত্যাচার শুরু হলো। আমার পোস্টার থাকতো না, আমার লোকজনকে হুমকি দেয়া হতো, আমাকে মাঠে নামতে দেয়া হতো না, অপমান করা হতো।’’

তবে আমি বলেছি, আমাকে যতই অপমান করা হোক না কেন, আমার পোস্টার যতই ছিঁড়ুক না কেন, আমার কোন অসুবিধা নাই। কিন্তু মানুষের মনের ভিতরে যে পোস্টার ঢুকে গেছে, সেটা কিন্তু ছিঁড়ে নিতে পারবে না কেও।

বিজয়ী হয়ে আনন্দিত শম্পা খাতুন পপি বলেন, নির্বাচনে জয়ী হয়ে তার খুব ভালো লাগছে। এলাকাবাসীকে তিনি ধন্যবাদ
জানিয়েছেন। সাধ্যমতো তিনি সবাইকে সেবা করে যাবেন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here