ইউনাইটেড নিউজ ২৪ ডেস্ক :: সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবস সোমবার লেনদেনের শুরুতে দেশের শেয়ারবাজারে মূল্যসূচকের নিম্নমুখী প্রবণতা দেখা দিলেও শেষ পর্যন্ত চমকের মাধ্যমে দিনের লেনদেন শেষ হয়েছে। তবে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্যসূচক বাড়লেও লেনদেনের পরিমাণ কিছুটা কমেছে।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন শুরু হতেই একের পর এক প্রতিষ্ঠানের দরপতন হতে থাকে। এতে প্রথম ছয় মিনিটেই ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ৩০ পয়েন্টের মতো কমে যায়। এরপর সূচক কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী হয়। ১০টা ২০ মিনিটে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক আগের দিনের তুলনায় ২০ পয়েন্ট বেড়ে যায়। অল্প সময়ের মধ্যেই আবার ঋণাত্মক হয় সূচক।

অবশ্য শেষ দুই ঘণ্টার লেনদেনে টানা ঊর্ধ্বমুখী থাকে বাজার। এ সময়ের মধ্যে লেনদেনে অংশ নেওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ে। ফলে দিনের লেনদেন শেষে দাম বাড়ার তালিকায় নাম লেখায় ১৮৯টি প্রতিষ্ঠান। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নেয় ১৪৩টি। আর ৪৩টির দাম অপরিবর্তিত থাকে।

এতে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১৫ পয়েন্ট বেড়ে সাত হাজার ২১৮ পয়েন্টে উঠে এসেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসইর শরিয়াহ্ দুই পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৫৭৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। তবে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক দুই পয়েন্ট কমে দুই হাজার ৬৩৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

এদিকে ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণ কিছুটা কমেছে। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে দুই হাজার ৪০ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় দুই হাজার ৭০৮ কোটি ৪০ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন কমেছে ৬৬৭ কোটি ৮৭ লাখ টাকা।

টাকার অংকে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ১৪৯ কোটি ৫৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেক্সিমকো ফার্মার ৬৪ কোটি ২২ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৫৯ কোটি ৫৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্স।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- এনআরবিসি ব্যাংক, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, লংকাবাংলা ফাইন্যান্স, লিন্ডে বিডি, সাইফ পাওয়ার টেক, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস ও ডমিনেজ স্টিল বিল্ডিং।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৪৪ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৬৭ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩২৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৬৪টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৩২টির ও ২৭টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here