ইমা এলিস/ বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্ক ::

শেরপুরে শীতার্তদের হাতে কম্বল তুলে দিলেন সাদেক আলী ফাউন্ডেশন। গত শনিবার (৭ জানুয়ারি) শেরপুরে সদর উপজেলাধীন চর জংগলদী গ্রামে মরহুম সাদেক আলীর নিজ বাড়িতে প্রায় দু’শতাধিক দরিদ্র ও অসহায় মানুষদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। এ সময় সাদেক আলী ফাউন্ডেশনের নির্বাহ পরিচালক আব্দুল করিমের সভাপতিত্বে শামীম হোসনের পরিচালনায় সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

কম্বল হাতে পেয়েই খুশি হয়ে উঠেন বৃদ্ধা খুশি ছফুরা বেগম। তিনি বলেন সাদেক আলী ফাউন্ডেশন প্রতি বছরের মত এবারও হাঁড় কাঁপানো শীতে আমার মত গরীব মানুষদের মাঝে অনেক কম্বল দিয়েছেন এ জন্য আমরা ভীষন খুশী। তিনি সাদেক আলী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আবুল কাশেম লেবুর কাছে কৃতজ্ঞ থাকবো। আমি তার দীর্ঘায়ূ কামনা করছি।

শীতবস্ত্র প্রাপ্ত ছলিম ফকির বলেন, সাদেক আলী ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান প্রবাসী আবুল কাশেম কিছু একটা দিবে এই আশায় আমরা বসে থাকি। সারা বছর এ দিনের জন্য অপেক্ষায় করি। প্রতি বারের মত এবারও সুন্দর একটা কম্বল পেয়েছি এ জন্য আমি খুব খুশী। আমি তার বাবার জন্য আল্লাহ কাছে দোয়া করছি আল্লাহ যেন তার বাবাকে বেহেস্ত নছিব করেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য জাবেদ আলী তার বক্তব্যে বলেন, সাংবাদিক আবুল কাশেম লেবু একজন উদার সমাজসেবী নরম মনের ও পরোপকারী একজন মানুষ। তার কাছে সাহায্য চেয়ে কেউ খালি হাতে ফিরেছেন তা আমার জানা নেই। আমাদের সমাজে অনেক ধনী মানুষ রয়েছে কিন্তু, তাদের দান করার মত উদার মন মানসিকতা নেই। আবুল কাশেম তাদের ব্যতিক্রম, এ জন্য তিনি প্রশংসা পাবার দাবিদার।

তিনি বলেন, আবুলা কাশেমের শিক্ষানুরাগী-বিদ্যুৎসাহী মরহুম বাবা সাদেক আলীর নামে ফাউন্ডেশন করে প্রতি বছর হাজার হাজার টাকা খরচ করে শিক্ষা বৃত্তি, দরিদ্র মানুষের মাঝে অর্থ, বস্ত্র ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছেন তা আমাদের কাছে শিক্ষনীয়। প্রবাসী ভাইয়েরা ও সমাজের ধনী মানুষেরা যদি এ ভাবে সাহায্যের হাত প্রসারিত করে তাহলে আমাদের সমাজের দরিদ্র মানুষের অনেক উপকারে আসবে। তিনি তার মতো সমাজের ধনী মানুষদের এ ভাবে দান-খয়রাত করার আহ্বান জানান।

অন্যান্য দের মধ্য বক্তব্য রাখেন সাদেক আলী ফাউন্ডেশনের পরিচালক ছাইফুল হুদাপিটার, পরিচালক রেজাউল করিম রিফাত, ইউপি সদস্য জাবেদ আলী, আক্কাস আলী বুদু, সোলায়মান আলী, মোঃ জুয়েল রানা, শাহজাহান আলী ও জাহাংগীর আলম প্রমূখ।
উল্লেখ্য, নিউ ইয়র্ক প্রবাসী সাংবাদিক আবুল কাশেম ২০১৬ সালে তর বিদুৎসাহী বাবা মরহুম সাদেক আলীর নামে এ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। নিয়মিত ভাবে শেরপুর জেলারসদর উপজেলাধীন চর জংগলদী রাহেতুন নেছা উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রতি বছর পাঁচটি ক্লাসে সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপ্ত শিক্ষার্থীকে মেধা বৃত্তি দিয়ে আসছেন। ইতোমধ্যেই এলাকায় ছেলেমেয়েদের মাঝে লেখাপড়ার প্রতিযোগিতা পরিলক্ষিত হচ্ছে। কে এবার পরীক্ষায় ভালো করে সাদেক আলী বৃত্তি পাবে? করোনা মহামারীর সময়েও দুঃসহ ও ছিন্নমুল  মানুষদের মাঝে দুই দুইবার নগদ অর্থ ও খাদ্য সামগ্রী বিরতণ করেছেন।

এ ছাড়াও সাদেক আলী জামে মসজিদে নিয়মিত আর্থিক সাহায্য ও সহযোগিতাকরে আসছেন। অনুষ্ঠানে তার বাবা মরহুম সাদেক আলী ও মা মরহুমা বেগম চাঁনবানুর জন্য বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন স্থানীয় মসজিদের পেশ ইমাম মুফতি মাওলানা মাহমুদুল হাসান।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here