ব্রেকিং নিউজ

শেখ হাসিনা সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স: এমপি শাওন

আব্দুস সাত্তার, লালমোহন প্রতিনিধিঃ ভোলা-৩ (লালমোহন-তজুমদ্দিন) আসনের সংসদ সদস্য দ্বীপবন্ধু আলহাজ্ব নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সু-যৌগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন। দীর্ঘ ২১ বছর আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় ছিল না। এই ২১ বছরে সারাদেশে মাদকের ছড়াছড়ি ছিল। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতুত্বে আওয়ামীলীগ সরকার গঠন করারপর মাদকের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থান নিয়েছে সরকার।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় এসে বাংলাদেশকে তলা বিহীন ঝুড়ি থেকে উন্নয়নশীল দেশে রূপান্তরিত করেছেন। বিদ্যুৎখাতে উন্নয়ন করেছেন। এখন আর বিদ্যুতের লোডশেডিং নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অসহায় মানুষের চিন্তা করে তজুমদিনের দূর্গম চর জহির উদ্দিনে নদীর তলদেশদিয়ে সাব মেরিনের মাধ্যমে বিদ্যুৎ পৌছে দিচ্ছেন।

এমপি নূরনবী চৌধুরী শাওন আরও বলেন, ২০০১ সালে বিএনপি জোট সরকার ক্ষমতায় আসারপর মেজর হাফিজের ক্যাডার বাহিনী লালমোহন লর্ডহার্ডিঞ্জ পঙ্গু শেফালী, উজালা সহ অসংখ্য সংখ্যালঘুর উপর নির্যাতন করেছে। তখন মেজর হাফিজের সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে চলাফেরা করতো। বিভিন্ন স্থানে কার্ড দিয়ে চাঁদাবাজি করতো। আমি নির্বাচিত হওয়ারপর লালমোহন ও তজুমদিন থেকে সকল ধরণের চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসী, ইভটিজিং বন্ধ করেছি।

রোববার সকালে লালমোহন থানা কর্তৃক আয়োজিত মাদক, জঙ্গি, ইভটিজিং, বাল্য-বিবাহ, সাইবার ক্রাইম সহ সামাজিক অবক্ষয় প্রতিরোধে বিট পুলিশিং সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন এসব কথা বলেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ভোলা জেলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার বলেন, মাদক নিয়ন্ত্রণে পুলিশের একার পক্ষে সম্ভব নয়। মাদক নিয়ন্ত্রণ করতে হলে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন। আমাদের যুব সমাজ মাদকে আসক্ত হয়ে পড়ছে। বাংলাদেশে মাদকের কারখানা নেই। পাশ্ববর্তী দেশে মাদক উৎপাদন হয়।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (লালমোহন সার্কেল) মোঃ রাসেলুর রহমান। লালমোহন থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মাকসুদুর রহমান মুরাদের সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন, লালমোহন উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফখরুল আলম হাওলাদার, সহ-সভাপতি ইউপি চেয়ারম্যান আক্তার হোসেন,পৌরসভা আওয়ামীলীগের আহ্ববায়ক সফিকুল ইসলাম বাদল, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবুল হাসান রিমন, পৌর কাউন্সিলর ফরহাদ হোসেন মেহের, সাংবাদিব মিজানুর রহমান লিপু, শাহিন আলম মাকসুদ প্রমূখ।

এসময় বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, পৌর কাউন্সিলরবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দুর্গাপূজায় চারদিনের ছুটি বেনাপোল স্থলবন্দরে

ডেস্ক রিপোর্ট :: সনাতন ধর্মাবলম্বীদের শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে টানা চারদিনের ছুটির ফাঁদে ...