ডেস্ক রিপোর্ট ::

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও ইতিহাসবিদ অধ্যাপক ড. আতফুল হাই শিবলী মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের ভগ্নিপতি।

 

মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) ঢাকার বেসরকারি একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর। তিনি এক ছেলে ও স্ত্রীসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, অধ্যাপক আতফুল হাই শিবলী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ও এ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ছিলেন। রাবি থেকে তিনি অবসর নেন ২০০৮ সালে। আতফুল হাই শিবলী ২০০৮ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৬ সালের ১৮ আগস্ট তিনি সিলেটের নর্থ ইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে যোগ দেন।

বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বনানী জামে মসজিদে আতফুল হাই শিবলীর জানাজা শেষে বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে। আতফুল হাইয়ের পৈতৃক বাড়ি হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার দীঘলবাগ গ্রাম।

আতফুল হাই শিবলী স্ত্রী নাজিয়া খাতুন রাবির নার্সারি স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং ঢাকা উইমেন কলেজে দীর্ঘদিন শিক্ষকতা করেছেন। বর্তমানে বেসরকারি সংস্থা ব্রাকের অধীন একটি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত। তার ছেলে শাকির যুক্তরাষ্ট্রের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনা করেন।

এর আগে গত ২৮ আগস্ট পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের আরেক ভগ্নিপতি বজলুন নুর মারা যান। তিনি তৎকালীন পাকিস্তান তথ্য সার্ভিসের সদস্য ছিলেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বোন ছিলেন বজলুন নুরের প্রথম স্ত্রী। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বোন মারা যান।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here