বেনাপোল প্রতিনিধি ::
যশোরের শার্শা উপজেলার ৬নং গোগা ইউনিয়ানে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন প্রার্থীতাকে কেন্দ্র করে বর্তমান চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ দলীয় নৌকা প্রার্থী ঘোষণা পাওয়ার পর তার সমার্থকরা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী তবিবর রহমানের সমার্থকদের উপর এক সন্ত্রাসী হামলা চালায়। 
শনিবার সকাল ৯টার সময় তবিবর রহমান ঢাকা থেকে বাগআঁচড়ায় ফিরলে তাকে আনতে তার সমার্থকেরা গোগা বাজার অতিক্রম করা কালীন চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদের সমার্থকেরা তাদের উপর অতর্কিত হামলা করে। এই হামলায় তবিবর রহমানের প্রায় ৫০ জন সমার্থক আহত হয়, যার মধ্য ১৩ জন গুরুতর আহত হয়।
এলাকাবাসীরা বলেন, চেয়ারম্যান প্রার্থীতাকে কেন্দ্র করে ২ পক্ষের মধ্যে তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বীতা বিরাজ করছিলো। তারই ধারাবাহিতায় গতকাল ২২শে অক্টোবর নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থীতা ঘোষণা হলে, দলীয় মনোনয়ন পাওয়া আব্দুর রশিদে চেয়ারম্যানের সমার্থকেরা তবিবর রহমানের লোকজনের উপর সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনা করে। তার ফলশ্রুতিতে আজ এই হামলা হয়।
সরেজমিনে তবিবর রহমানের বাসা অগ্রভুলোটে গেলে দেখা যায়, আহত ব্যাক্তিদের আর্তনাদে এলাকার বাতাসে বাতাস ভারী হয়ে উঠেছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, তবিবর রহমান ঢাকা থেকে বাগআঁচড়া আসলে তাকে বাড়িতে আনতে তার সমার্থকেরা যাওয়ার পথে গোগা বাজার পৌঁছালে চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্রসহ তাদের উপর হামলা চালায়। এই হামলায় গুরুত্বর আহত ১৩ জনসহ সর্বমোট প্রায় ৫০ জন আহত হয়। আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা শেষ করে, শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও গুরুতর আহতদের যশোর জেনারেল হসপিটালে ভর্তি করা হয়েছে।
এবিষয়ে শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম খান হামলার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আমরাও বিষয়টি শুনেছি এবং ঐস্থানে আমাদের টিম সকাল থেকেই ঘটনার তদন্ত করছে। তবে এবিষয়ে থানায় এখনো কোন অভিযোগ হয়নি।
Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here