আতিক মাহবুব, শাবিপ্রবি

শাহজালাল বিজ্ঞান  প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সদ্য সাবেক যুগ্ম আহবায়ক ও বর্তমান কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি নাঈম হাসানসহ আহবায়ক ও যুগ্ম আহ্বায়কদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে করা মামলা প্রত্যাহারের আবেদন করেছেন মেসার্স মালিথা ট্রেডার্সের মালিক হাবিবুর রহমান। তবে চাঁদার দাবি পূরন না হওয়ায়  মারধরের ঘটনার ব্যাপারে কোন প্রকার ব্যবস’া নেয়া হয়নি বলে জানা যায়।

সূত্রে জানা যায়, চাঁদাবাজির ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রশাসন ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে যে অপ্রীতিকর অবস’া তৈরী হয়েছিল তার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে জালালাবাদ থানা বরাবর মামলাটি দ্রুত প্রত্যাহারের ব্যবস’া করার আবেদন জানান তিনি। বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য ও শিক্ষকবৃন্দ এবং সদর উপজেলা চেয়ারম্যানের সাথে কয়েক দফা বৈঠক শেষে চাঁদাবাজির বিষয়টি ভূল প্রমাণিত হওয়ায় মামলা প্রত্যাহারের আবেদন করা হয়ে বলে জানিয়েছেন হাবিবুর রহমান মালিথা।

এ ব্যাপারে সিলেট জালালাবাদ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো.সেলিম হোসেন সাংবাদিকদের জানান, বাদী পক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে মামলা প্রত্যাহার করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, চাঁদা না দেয়ায় গত ৩০ নভেম্বর রাত সাড়ে ১০টার দিকে ছাত্রলীগের হামলার শিকার হন মালিথা ট্রেডার্সের প্রকল্প প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ,শাবি আহ্বায়ক ও যুগ্ম আহ্বায়কদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ এনে মামলা করেন মালিথা ট্রেডার্সের মালিক হাবিবুর রহমান।  মামলায় ছাত্রলীগের আহ্বায়ক শামছুজ্জামান চৌধুরী সুমন, যুগ্ম আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান আসাদ ও নাঈম হাসান, মাহিবুল হাসান মুকিত, কামরুজ্জামান খান সুইট সহ অজ্ঞাত ১৫-২০ জনকে আসামী করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here