ষ্টাফ রিপোর্টার :: গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার চন্দ্রা, মৌচাকসহ আশপাশের এক আতঙ্কের নাম জসিম ইকবাল ওরফে মুচি জসিম। সরকারি বনের জমি এবং ব্যাক্তি মালিকানাধীন জমি দখলসহ ক্যাডার বাহিনী দিয়ে চলতো তাঁর ভয়ংকর শাসন।

কালিয়াকৈর থানার পুলিশ ও গাজীপুর ডিবি পুলিশের সহযোগীতায় মিথ্যা মামলার ভয় দেখিয়ে শতাধিক মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছেন লাখ লাখ টাকা। জুতা কারখানার সামান্য কর্মচারী থেকে এখন তিনি শত কোটি টাকার মালিক বনে গেছেন।

দুটি মামলায় সাজা প্রাপ্ত এবং ১৭টি মামলার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা নিয়ে বীরদর্পে তিনি এলাকা দাপিয়ে বেড়ালেও শেষ পর্যন্ত সেই মুচি জসিমকে গ্রেপ্তার করেছে গাজীপুর জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় কাালিয়াকৈরের নিজ বাড়ির সামনে থেকেই তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারের খবর শুনেই স্থানীয় বাসিন্দারা এলাকায় উল্লাস প্রকাশ করে আনন্দ মিছিল করেন এবং স্বস্তি প্রকাশ করে ধন্যবাদ জানান সদ্য যোগ দেয়া গাজীপুর জেলা পুলিশ সুপার বেগম শামসুন্নাহারের প্রতি।

এলাকার ভূক্তভোগী পরিবারগুলোর অভিযোগ, মুচি জসিম পুলিশ প্রশাসনকে কাজে লাগিয়ে স্থানীয় মানুষ জিম্মি করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। একটু প্রতিবাদ করলেই মিথ্যা মামলায় জেলে যাওয়া এবং নানা ধরনের নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে স্থানীয় মানুষকে। এলাকার বনের জমি এবং ব্যাক্তি মালিকাধীন জমিও দখল করে নিয়েছে জসিম সিন্ডিকেট।

সেই জসিমকে গ্রেপ্তার করায় যেন তাদের মধ্যে ঈদের আনন্দ হচ্ছে।

এই জসিমের গ্রেপ্তারের জন্য আমরা জেলার পুলিশ সুপার বেগম শামসুন্নাহার ও গাজীপুর জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ন কবীর ধন্যবাদ জানান। গত বুধবার ‘মুচি জসিমের এখন শত কোটি টাকা’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ হলেই গাজীপুর জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনসহ তোলপাড় শুরু হয় সারাদেশেই।

বৃহস্পতিবার অভিযান চালিয়ে আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায়।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here