লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সালাহ উদ্দিন টিপু করোনায় আক্রান্ত

জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের সভাপতি এ কে এম সালাহ উদ্দিন টিপু করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। গত কয়েক দিন থেকে তিনি জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন। তবে বর্তমানে তিনি সুস্থ রয়েছেন।

এর আগে সালাহ উদ্দিন টিপুর পিতা লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের করোনায় আক্রান্ত হন। রবিবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন লক্ষ্মীপুর সিভিল সার্জন ডা. আবদুল গফফার।

সিভিল সার্জন ডা. আবদুল গফফার জানান, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ কে এম সালাহ উদ্দিন টিপুসহ তার পরিবারের ১১ জনের সম্প্রতি করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দেওয়া হয়। রবিবার শুধু টিপুর নমুনা পরীক্ষায় করোনা পজেটিভ আসে অন্য সবার নেগেটিভ এসেছে। গত কয়েক দিন থেকে তিনি জ্বরে আক্রান্ত ছিলেন। বর্তমানে তিনি নিজ বাসায় হোম আইসোলেশনে রয়েছেন।

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের সভাপতি এ কে এম সালাহ উদ্দিন টিপু করোনা পরিস্থির শুরু থেকে এখন পর্যন্ত জেলায় করোনা প্রতিরোধে বিভিন্ন কার্যক্রমে সক্রিয় অংশগ্রহণ ও দুস্থদের মাঝ ত্রণ বিতরণ করে আসছেন।

দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে লক্ষ্মীপুরের সাধারণ মানুষের কল্যাণে প্রতিটি মুহুর্তে নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন তিনি। করোনার ভয়াবহ পরিস্থিতির শুরু থেকে জেলার অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে মানবিক নেতার উপাধি পেয়েছিলেন সালাহ উদ্দিন টিপু।

এদিকে লক্ষ্মীপুরে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরো ২৫ জন। এনিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ১৩১১ জনে। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত সদর উপজেলায়। এই উপজেলা এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৬৪ জনে। এদিকে নতুন আক্রান্ত ১৯ জন সদর উপজেলার, চার জন রামগঞ্জ উপজেলার ও দুই জন রায়াপুর উপজেলার বাসিন্দা।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানা যায়, গত ২৪ ঘন্টায় ৬৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় নেগেটিভ আসে ৪১ জনের। আর পজেটিভ আসে ২৫ জনের। লক্ষ্মীপুরে সর্বমোট ১৩১১ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এদের মধ্যে সদরে ৭৬৪ জন, রামগঞ্জে ১৯৩ জন, রায়পুরে ১১৭ জন, কমলনগরে ১৬২ জন ও রামগতিতে ৭৫ জন রয়েছেন। জেলায় এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১০২৭ জন।

তাদের মধ্যে সদরে প্রশাসনিক কর্মকর্তা, সাংবাদিক, পুলিশসহ ৫৭৪ জন, রামগঞ্জে চিকিৎসক, সাংবাদিক, পুলিশসহ ১৪৭ জন, কমলনগরে চিকিৎসক ও নারী-শিশুসহ ১৪৭ জন, রামগতিতে জনপ্রতিনিধি, পুলিশসহ ৫৬ জন এবং রায়পুরে জনপ্রতিনিধি, পুলিশসহ ১০৩ জন। জেলার সদর উপজেলায় তিনজন ও রামগঞ্জ উপজেলায় একজন শনাক্ত হওয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনা পজেটিভ রোগী মারা যায়।

এছাড়া রামগঞ্জ উপজেলায় দশজন, সদর উপজেলায় ১২ জন, রায়পুর উপজেলায় দুইজন, রামগতি উপজেলায় একজন ও কমলনগর উপজেলায় একজন মৃত ব্যক্তির করোনা পজিটিভ আসে।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

পদ্মা নদীতে ইলিশ রক্ষায় হেলিকপ্টার নিয়ে অভিযান

নাজমুল মোড়ল, মাদারীপুর প্রতিনিধি : মাদারীপুরের শিবচরের পদ্মা নদীতে মা ইলিশ রক্ষায় ...