লক্ষ্মীপুরে শিক্ষক সমিতির নির্বাচন নিয়ে প্রহসন চলছে

জহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির নির্বাচন নিয়ে আহবায়ক কমিটি ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার প্রহসন ও চলচাতুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

উপজেলার মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির নির্বাচন নিয়ে গঠিত আহবায়ক কমিটি ৩সেপ্টেম্বর নির্বাচনের তফছিল ঘোষনা করেন। ঘোষিত তফছিল অনুযায়ী ১০সেপ্টেম্বর থেকে ১২সেপ্টেম্বর নির্বাচনের মনোনয়নপত্র গ্রহন ও জমাদানের তারিখ ধার্য করা হয়।

সে অনুযায়ী আগামী ১অক্টোবর নির্বাচনের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। এরই মধ্যে প্রার্থীগণ নির্বাচনের ফরম কিনে তা জমা দেন। এতে সভাপতি পদে ৩জন, সহ-সভাপতি পদে ৫জন, সাধারণ সম্পাদক পদে ২জন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে ৩জন ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ২জনসহ ১৩টি পদে ২৬জন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন পত্র জমা দেন। ১৪সেপ্টেম্বর রিটানিং কর্মকর্তা মনোনয়নপত্র যাছাই বাছাই করে সবার প্রার্থীতা বৈধ ঘোষনা করেন। ১৬সেপ্টেম্বর প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিনে ২৬জন প্রার্থীর মধ্যে কোন প্রার্থী তাদের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নাই।

এরই মধ্যে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এবং মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির নির্বাচনের রির্টানিং কর্মকর্তা মো. আবু তালেব ও আহবায়ক কমিটির সদস্যরা তাদের পছন্দের প্রার্থীদের নির্বাচিত করতে নির্বাচন নিয়ে নানা চলচাতুরি করতে থাকেন।

পরে রির্টানিং কর্মকর্তা তাঁর পছন্দনীয় কতিপয় ব্যক্তিকে ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করতে পারবেনা বুঝতে পেরে সুস্পষ্ট কোন কারণ ছাড়াই ১৭সেপ্টেম্বর মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির নির্বাচন স’গিত করেন। অন্যদিকে নির্বাচনের প্রার্থীরা ১৮সেপ্টেম্বর রির্টানিং কর্মকর্তার কাছে নির্বাচন স’গিতের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি তাদেরকে জানান, তিনি রির্টানিং কর্মকর্তার পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন।

তবে প্রার্থীরা নির্বাচনে রির্টানিং কর্মকর্তার পদত্যাগকে সম্পূর্ণ উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং আইনের পরিপন্তি বলে জানান।

অভিযোগ রয়েছে নির্বাচনে গঠিত আহবায়ক কমিটির সদস্য মো. আবদুর রহমান, মো. আলিউর রহমান, আবদুল গফুর, মো. মাহবুবুর রহমান ও মাহবুবুর রশিদ এবং রির্টানিং কর্মকর্তার যোগসাজসে চলমান গণতান্ত্রিক নির্বাচনকে বন্ধ করা হয়েছে। এ দিকে শিক্ষকদের গণতান্ত্রিক নির্বাচনে কোন কারন ছাড়ায় নির্বাচন বন্ধ ঘোষনা করায় উপজেলার সকল শিক্ষক ও প্রার্থীদের মাঝে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। এ নিয়ে প্রার্থী, আহবায়ক কমিটি ও রির্টানিং কর্মকর্তার মধ্যে মুখোমুখি অবস’া বিরাজ করছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে রির্টানিং কর্মকর্তা মো. আবু তালেব অভিযোগের বিষয় অস্বীকার করে বলেন, নির্বাচনে গঠিত ভোটার তালিকায় অসংগতি ও অনেক প্রতিষ্ঠানকে ভোটার না করার সু-নিদিষ্ট অভিযোগ থাকায় নির্বাচন স’গিত করা হয়েছে। শিক্ষকদের দ্বদ্ধে নিজেকে না জড়াতে তিনি রির্টানিং কর্মকর্তার পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন বলেও জানান।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সরকারি বনায়নের জায়গা দখল করে চিংড়ি ঘের

মহানন্দ অধিকারী মিন্টু, পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি :: খুলনার পাইকগাছায় সামাজিক বনায়নের চর ...