জহিরুল ইসলাম শিবলু,লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি :: লক্ষ্মীপুরে চা খেয়ে বাড়ি ফেরার পথে ব্রিক ফিল্ডের শ্রমিক কাশেম আলীকে (২৮) হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

সোমবার (১৮ জানুয়ারি) সকালে এ ঘটনা ঘটে৷ হত্যার পর রাস্তার পাশে গাছের সঙ্গে মাফলার পেঁছিয়ে মরদেহ ঝুলিয়ে রাখে দুর্বৃত্তরা। কাশেমের গলায় মাফলার পেঁছানো থাকলেও হাটু ভাঙা অবস্থায় মাটিতে লেগে ছিল।

স্থানীয়দের ধারণা, পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করা হয়েছে। তবে কী কারণে এবং কারা এ হত্যাকান্ডটি ঘটিয়েছে তা জানা যায়নি।

জানা গেছে, কাশেম আন্ধারমানিক গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে। তার সংসারে স্ত্রী নুর জাহান আক্তার ও আরমান হোসেন নামের দেড় বছরের এক পালক ছেলে রয়েছে। তিনি স্থানীয় জসিম ব্রিক ফিল্ডে শ্রমিকের কাজ করতেন।

সোমবার সকাল ৯টার দিকে সদর উপজেলার তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের আন্ধারমানিক গ্রামে স্থানীয়রা গাছের সঙ্গে শ্রমিক কাশেম আলীর মরদেহ ঝুলানো দেখতে পায়। খবর পেয়ে বেলা ১২টার দিকে সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোসলেহ উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

স্থানীয় চা দোকানি বৃদ্ধ আবদুর রহিম জানান, ঘটনার আগে কাশেম তার দোকানে চা খেয়েছে। চা খেয়ে কাশেম বাড়ির দিকে রওয়ানা দেয়। পরে লোকজনের কাছে কাশেমের মৃত্যুর খবর পান তিনি।
জসিম ব্রিক ফিল্ডের মাঝি ও কাশেমের জেঠাতো ভাই সবুজ হোসেন বলেন, সকাল পৌনে ৮টার দিকে কাশেম ব্রিক ফিল্ড থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে বের হয়। পথে কে বা কারা তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে মরদেহ ঝুলিয়ে রেখেছে। যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে, তাদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানাচ্ছি।

তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক ইবনে হুছাঈন ভুলু বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে কাশেমকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। কাশেমের মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

এ ব্যাপারে লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোসলেহ উদ্দিন বলেন, হত্যার রহস্য উদঘাটনে স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলা হচ্ছে। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here