ডেস্ক রিপোর্ট::  নির্বাচন সুষ্ঠু হলে লক্ষাধিক ভোটের ব্যবধানে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদেরকে পরাজিত করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হবেন বলে আশা প্রকাশ করছেন রংপুর-৩ আসনের প্রার্থী তৃতীয় লিঙ্গের (হিজড়া) আনোয়ারা ইসলাম রানী। প্রচারণার শেষ দিন বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) দুপুরে রংপুর শহরের প্রেসক্লাব এলাকায় গণসংযোগকালে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে এমন প্রত্যাশার কথা বলেন ঈগল প্রতীকের এই স্বতন্ত্র প্রার্থী।

আনোয়ারা ইসলাম রানী বলেন, যদি নির্বাচন সুষ্ঠু হয়, আমার সঙ্গে কোনো অন্যায় না হয় তাহলে লক্ষাধিক ভোটে বিজয়ী হবো বলে আশা করছি। কারণ সবখানেই আমি ভালো সাড়া পাচ্ছি। মানুষ আমাকে ভোট দেওয়ার জন্য ৭ জানুয়ারির অপেক্ষায় রয়েছে। আমি যেভাবে মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়েছি সেভাবে কোনো প্রার্থী যায়নি। একজন ইউপি সদস্য প্রার্থীর মতো ছুটেছি।

ভোটের পরিবেশ নিয়ে আস্থা ও আশঙ্কা দুটোই আছে জানিয়ে তৃতীয় লিঙ্গের এই প্রার্থী বলেন, এটা নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। আস্থাও আছে আবার আশঙ্কাও আছে। আমি জনগণের ভোটে এমপি নির্বাচিত হলেও হয়ত বা জিএম কাদেরকে অটোপাসের মাধ্যমে নির্বাচিত করা হবে, এরকম একটা আশঙ্কা আমি করছি। যদিও আমি নিশ্চিত না। ৭ জানুয়ারি ভোট শেষে সন্ধ্যায় বিষয়টি জানা যাবে।

রানী আরও বলেন, শুরু থেকে এখন পর্যন্ত ভোটের পরিবেশ সুষ্ঠু রয়েছে। যদিও আমার ওপর ছোটোখাটো একটা হামলা হয়েছে, পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে এবং প্রশাসন থেকে একবার আমার মিছিলে বাধাও দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া তেমন বড় কিছু হয়নি।

নির্বাচিত হলে জনগণের চাওয়া-পাওয়াকে মূল্য দিয়ে কাজ করার প্রতিশ্রুতি তুলে ধরে এই স্বতন্ত্র প্রার্থী বলেন, নির্বাচিত হলে কৃষিভিত্তিক শিল্প কলকারখানা ও কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করব। রংপুরের কৃষিকে এগিয়ে নিতে যা করার প্রয়োজন সেটাই বেশি গুরুত্ব পাবে। রংপুরের উন্নয়নে যে ২১টি প্রস্তাবনা তুলে ধরেছি তা বাস্তবায়নে জোর দেওয়া হবে।

নিজের প্রচারণার বিষয়ে রানী বলেন, আমি যেখানেই যাচ্ছি, মানুষের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। মানুষের একটাই কথা, এবার ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার কোনো ইচ্ছে ছিল না। কেবল রানী আপাকে ভোট দিতেই কেন্দ্রে যাব। মানুষের মাঝে একঘেয়েমি এসেছে। তারা এখন পরিবর্তন চাচ্ছে।

এ সময় তার হলফনামায় উল্লেখ করা সাড়ে ৩৬ লাখ টাকার টয়েটো কার প্রসঙ্গে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি হলফনামায় একটা গাড়ির কথা বলেছি। এটা আমার জনগোষ্ঠীর লোকেরা আমাকে উপহার দিয়েছে। দীর্ঘ ১৪ বছর ধরে আমি তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের জন্য কাজ করছি। তাদের টাকায় আমাকে এই কার উপহার দিয়েছে, যাতে আমার সঙ্গে মানুষের যোগাযোগ বাড়ে। দশম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশুনা করেছেন বলেও জানান তিনি।

রংপুর-৩ (সদর উপজেলা ও সিটি কর্পোরেশনের ৯ থেকে ৩৩ নং ওয়ার্ড) আসনে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের দলীয় প্রতীক ‘লাঙ্গল’, বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির আব্দুর রহমান রেজু ‘একতারা’, বাংলাদেশ কংগ্রেসের একরামুল হক ‘ডাব’, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সহিদুল ইসলাম ‘মশাল’, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির শফিউল আলম ‘আম’ এবং তৃতীয় লিঙ্গের স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ারা ইসলাম রানী ‘ঈগল’ প্রতীকে লড়ছেন।

এই আসন থেকে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী তুষার কান্তি মন্ডলকে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়েছে। ভোটযুদ্ধে এ আসনে জিএম কাদেরসহ ৬ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে সাধারণ ভোটারদের কাছে ‘লাঙ্গল’ ও ‘ঈগল’ রয়েছে প্রতিদ্বন্দ্বিতার আলোচনায়। এখানে মোট ভোটার ৪ লাখ ৯৪ হাজার ৭৬৮ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার ২ লাখ ৪৭ হাজার ২৯৪ জন ও পুরুষ ২ লাখ ৪৭ হাজার ৪৭২ এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার ২ জন।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here