কনক বড়ুয়া, উখিয়া(কক্সবাজার) প্রতিনিধিঃ কক্সবাজারের টেকনাফে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রুপের গুলিতে স্থানীয় এক সিএনজি চালক গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছে। এসময় আহত হয়েছে আরো একজন। তিনি এখন চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) রাত ৮ টার দিকে উপজেলার হ্নীলা ২৭নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের জামবাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার (২২এপ্রিল) রাত ৮টার দিকে উপজেলার হ্নীলা ২৭নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের জামবাগান এলাকায় ডাকাত হাশিম উল্লাহ, কালু ও নুরাইয়া গ্রুপে যোগ দেওয়া স্থানীয় গোলাম নবীর পুত্র আব্দুর রহমান প্রকাশ গেজিকে ভাল পথে ফিরিয়ে এনে স্বাভাবিক জীবন-যাপন করার জন্য ৩০/৩৫জন মিলে যানবাহনযোগে সেখানে গিয়ে আলোচনায় বসে। আলচনার একসময় একটি গ্রুপের সাথে কথা কাটাকাটি হয়।

তখন ক্ষিপ্ত হয়ে হাশিম উল্লাহ, কালু, নুরু এলোপাতাড়ি গুলিবর্ষণ করলে স্থানীয় বাঁচা মিয়ার পুত্র মোহাম্মদ হোসেন (৩০) এবং পুরান রোহিঙ্গা মুজিবুল্লাহর পুত্র আয়াজ উদ্দিন (১৯) গুলিবিদ্ধ হয়। উপস্থিত লোকজন গুলিবিদ্ধদের দ্রুত উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়। সেখানে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সিএনজি চালক মোঃ হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন বলে প্রত্যক্ষদর্শী আনোয়ার হোসেন নিশ্চিত করেন।

এ ব্যাপারে হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী জানান, দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির জেরধরে গোলাগুলির ঘটনায় ২জন গুলিবিদ্ধ হয়েছে। এতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় একজন মারা যায়। তিনি রোহিঙ্গাদের এই ধরনের আচরণে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

টেকনাফ মডেল থানার ওসি মোঃ হাফিজুর রহমান জানান, এই ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। পুলিশের দল সন্ত্রাসীদের আটক অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here