রায়পুরে ডাক্তার ও নার্সের অবহেলায় মা ও নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ

রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সজহিরুল ইসলাম শিবলু, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি:: লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ডাক্তার ও নার্সের অবহেলায় প্রসূতি মা রোজীনা আক্তার (১৮) ও তাঁর নবজাতক ছেলের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার ভোরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এ ঘটনা ঘটে। সকালে খবর পেয়ে উত্তেজিত স্বজনরা হাসপাতালে হামলার চেষ্টা চালায়। পরে তারা মা-ছেলের লাশ নিয়ে হাসপাতালের সামনে অবস্থান নেয়।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। নিতহ রোজীনা উপজেলার চরবংশী ইউনিয়নের খাসের হাট এলাকার গনি মেস্ত্রীর বাড়ীর ইমরানের স্ত্রী। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা যায়।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও স্বজনরা জানায়, গত রবিবার ১৯ নভেম্বর বিকালে অন্তঃসত্ত্বা রোজীনা আক্তারকে রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের লেবার ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এ সময় তারা চিকিৎসক কোথায় জানতে চাইলে কর্তব্যরত নার্স নাসিমা ও রেহানা তার চিকিৎসা শুরু করেন। পরে ডাক্তার শামীমা জাহান ওই প্রসূতিকে দেখে সিজার অপারেশনের সম্ভ্যব তারিখ ২২ নভেম্বর দিয়ে থাকেন।

বুধবার রাত ৩ টার দিকে রোজীনার প্রসূত ব্যাথা শুরু হলে বারবার নাস রেহানা ও নাসিমাকে চিকিৎসক ডাকতে বলা হলেও কেউ কোনো চিকিৎসক ডাকেননি এবং নার্স রেহানা ও নাসিমা একে অপরের কথা বলে সময় পার করতে থাকে। একপর্যায়ে রোজীনা ছেলে সন্তান প্রসব করলেও নবজাতকটি মারা যায়। এর কিছুক্ষণ পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে রোজীনাও মৃত্যু হয়। তবে ওই রাতে হাসপাতালে ডাক্তার শামীমা জাহান দায়িত্বে ছিলেন।

পরে মা ও নবজাতকের মৃত্যুর পর স্বজনরা কয়েক দফায় হাসপাতালটিতে হামলার চেষ্টা চালালে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এক দালাল মহিলার মাধ্যমে লাশ দুটি হাসপাতালের থেকে বের করে তাঁদের গ্রামের বাড়ীতে পাঠিয়ে দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস’লে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

নিহতের স্বামী ইমরানের অভিযোগ করে বলেন, হাসপাতালের নার্স ও ডাক্তারের অবহেলায় তার স্ত্রী ওতার নবজাতক ছেলে মারা গেছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন তিনি।

রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত ডাক্তার শামীমা জাহান বলেন, নার্সদের অবহেলা থাকতে পারে। তবে আমার কোন অবহেলা নেই। আমি খবর পেয়েই দ্রুত ওই রোগীকে চিকিৎসা দেওয়ার আগেই মা ও নবজাতক মারা যায়। এখানে আমার চিকিৎসায় অবহেলার কোনো ব্যাপার নেই।

রায়পুর থানার পুলিশ পরিদর্শক মোহাম্মদ সোলাইমান জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে প্রাথমিক ভাবে নার্স ও ডাক্তারের অবহেলার কথা উঠে আসছে।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা র সাক্ষাৎ

স্টাফ রিপোর্টার :: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ বুধবার সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো. ...