ডেস্ক রিপোর্ট:: ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদের দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচন শেষ হয়েছে। এ নির্বাচনে রাজবাড়ীর দুইটি উপজেলায় মোট ১৬ জন ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) ও ৯ জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। এদের মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে ১২ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রার্থী জামানত হারাচ্ছেন। এর মধ্যে রাজবাড়ী সদরে (পুরুষ) ৮ জন ও মহিলা ৩ জন ভাইস চেয়ারম্যান ও বালিয়াকান্দি উপজেলায় ৪ জন (পুরুষ) ও একজন মহিলা।

জামানত হারানো প্রার্থীরা হলেন, রাজবাড়ী সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী(পুরুষ) ও রাজবাড়ী প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট খান জহুরুল হক (মাইক), রাজবাড়ী পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গণেশ মিত্র (পালকি), কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য ইয়াছির আরাফাত রামিম (তালা), মোহন মোল্লা (টিউবওয়েল), রায়হান চৌধুরী রনি (বৈদ্যুতিক বাল্ব), রাশেদুল হক (বই), শাহীন মোল্লা (উড়োজাহাজ), সাবেক ছাত্রলীগ নেতা হরিপদ সরকার রানা (টিয়া পাখি) ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আলেয়া বেগম (বৈদ্যুতিক পাখা), চম্পা খাতুন (প্রজাপতি), শাহিনুর আক্তার (হাঁস)। এছাড়া বালিয়াকান্দি উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী(পুরুষ) আবুল কালাম আজাদ(মাইক), আবুল কালাম আজাদ( টিয়া পাখি), বদিরুজ্জামান মোল্লা (উড়োজাহাজ), মতিউর রহমান (টিউবওয়েল) ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনুর সেলিম (কলস)।

নির্বাচনী বিধি অনুযায়ী, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদের জন্য একজন প্রার্থীকে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অনুকূলে এক লাখ টাকা জমা দিতে হয়। আর ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদের জন্য জমা দিতে হয় ৭৫ হাজার টাকা। নির্বাচনী এলাকার প্রদত্ত ভোটের ১৫ শতাংশ ভোট যদি কোনো প্রার্থী না পান, তাহলে তার জামানত বাজেয়াপ্ত হবে। সে অনুযায়ী জামানত বাজেয়াপ্ত হচ্ছে রাজবাড়ীর দুইটি উপজেলার ১৬ প্রার্থীর।

নির্বাচন কমিশনের প্রকাশ করা বেসরকারি ফলাফলে দেখা যায়, রাজবাড়ী সদর উপজেলায় ১১৫টি কেন্দ্রে মোট ৩ লাখ ৮ হাজার ৬৪০ ভোটের মধ্যে ভাইস চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে ভোট কাস্টিং হয়েছে ৬৩ হাজার ৬১২ ভোট। প্রদত্ত ভোটের ১৫ শতাংশ অনুযায়ী প্রত্যেক প্রার্থীদের পেতে হবে ৯ হাজার ৫৪২ ভোট। সে মোতাবেক রাজবাড়ী সদর উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী (পুরুষ) অ্যাডভোকেট খান জহুরুল হক মাইক প্রতীকে ৫ হাজার ৪০৬, গণেশ মিত্র পালকি প্রতীকে ৮ হাজার ২১১, ইয়াছির আরাফাত রামিম তালা প্রতীকে ৭ হাজার ৩৭, মোহন মোল্লা টিউবওয়েল প্রতীকে ১ হজার ১৪৪, রায়হান চৌধুরী রনি বৈদ্যুতিক বাল্ব প্রতীকে ২ হাজার ৮৩৯, রাশেদুল হক বই প্রতীকে ১ হাজার ২৮৫, শাহীন মোল্লা উড়োজাহাজ প্রতীকে ৩ হাজার ৫১৩ ও হরিপদ সরকার রানা টিয়া পাখি প্রতীকে ৬৪৫ ভোট পেয়েছেন। তারা প্রাপ্ত ভোটে বিধি মোতাবেক জামানত হারাচ্ছেন।

এছাড়া সদরে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট ভোট কাস্ট হয়েছে ৬৩ হাজার ৫৮৬ ভোট। প্রদত্ত ভোটের ১৫ শতাংশ অনুযায়ী প্রত্যেক প্রার্থীদের পেতে হবে ৯ হাজার ৫৩৭ ভোট।সে মোতাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আলেয়া বেগম বৈদ্যুতিক পাখা প্রতীকে ৫ হাজার ৫৫৫ ভোট, চম্পা খাতুন প্রজাপতি প্রতীকে ৩ হাজার ৯৩২ ও শাহিনুর আক্তার হাঁস প্রতীকে ৮ হাজার ৯৩১ ভোট পেয়েছেন। বিধি অনুযায়ী তার জামানতও বাজেয়াপ্ত হচ্ছে।

অপরদিকে বালিয়াকান্দি উপজেলায় মোট ভোটার ১ লাখ ৮১ হাজার ৮৬৯ জন। এ উপজেলার ৬৯ টি কেন্দ্রে ভাইস চেয়ারম্যান পদে ভোট পড়েছে ৮৫ হাজার ৭৫৭ ভোট।প্রদত্ত ভোটের ১৫ শতাংশ অনুযায়ী এ উপজেলার প্রত্যেক প্রার্থীকে পেতে হবে ১২ হাজার ৮৬৪ ভোট।সে মোতাবেক এ উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী (পুরুষ) আবুল কালাম আজাদ মাইক প্রতীকে ১০ হাজার ১৯৩, আবুল কালাম আজাদ টিয়া পাখি প্রতীকে ৩ হাজার ৬৯২, বদিরুজ্জামান মোল্লা উড়োজাহাজ প্রতীকে ৯ হাজার ১১১ ভোট, মতিউর রহমান টিউবওয়েল প্রতীকে ৩ হাজার ২৮৩ ভোট পেয়েছেন। মোট প্রদত্ত ভোটের ১৫ শতাংশের কম ভোট পাওয়ায় তাদের জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। এছাড়া মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোট ভোট কাস্ট হয়েছে ৮৫ হাজার ৬৯৭ ভোট। প্রদত্ত ভোটের ১৫ শতাংশ অনুযায়ী প্রত্যেক প্রার্থীদের পেতে হবে ১২ হাজার ৮৫৪ ভোট।

সেক্ষত্রে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনুর সেলিম কলস প্রতীকে ৭ হাজার ৪৯৪ ভোট পাওয়াই তার জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে।

জেলা নির্বাচন অফিসার মো. অলিউল ইসলাম বলেন, নির্বাচনে অংশ নেওয়া প্রার্থী মোট কাস্টিং ভোটের ১৫ শতাংশ ভোট পেলে নিয়ম অনুযায়ী জামানত ফিরে পাবেন। যদি ১৫ শতাংশের নিচে কেউ ভোট পান তাহলে তার জামানত বাজেয়াপ্ত হবে। আমরা সবার ভোটের হিসাব করছি। জানিয়ে দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত ২১ মে রাজবাড়ী জেলার তিনটি উপজেলায় ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদের দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচনে চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন ৩৭ জন প্রার্থী।

 

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here