“বুদ্ধিমতী ওমেরা”
-রহিমা আক্তার মৌ

ওমেরার বয়স পাঁচ বছর, সে ইন্টারন্যাশনাল হোপ স্কুল বাংলাদেশ (international hope school bangladesh) এর নার্সারি ক্লাসে পড়ে। ওর বাবা মা প্রতিদিন টিভিতে ‘আয়েশা মরিয়ম’ সিরিয়াল দেখে। বাবা মায়ের সাথে ওমেরাও দেখে। মরিয়ম চরিত্র ওর কাছে খুবই ভালো লাগে। একদিন ওমেরা বাবাকে বলে,
— বাবা আমি আমার নাম মরিয়ম রাখতে চাই।
বাবা ওকে বুঝিয়ে বলল, যে ওমেরা নামটা আমরা পছন্দ করে রেখেছি।
এবার ওমেরা কথা তাহলে আমার নামের সাথে মরিয়াম রাখতে পারি।
বাবা বলল,
— যেমন,,,,
ওমেরা বলল,
— আমার নাম হোক ওমেরা মরিয়ম।

ওমেরার পুরো নাম ওমেরা ফাতিমা ইব্রাহিম, আর ওর বাবার নাম মোহাম্মদ ইব্রাহিম খলিল। ওর বাবা ওকে বুঝিয়ে বলল, ‘দেখ মামনি ইব্রাহিম হল তোমার বাবার নামের পরিচয় যার জন্যে তোমার নামের সাথে ইব্রাহিম বসেছে। তোমার মামনির নাম হল সালমা বিনতে রহমান, এই রহমান নাম হল তোমার নানা ভাইয়ের পরিচয়। তাই তোমার মামনির নামের সাথে রহমান আর তোমার নামের সাথে ইব্রাহিম’।
ওমেরা মন দিয়ে বাবার কথা শুনলো।এরপর ও বলল,
— আচ্ছা বাবা দাদার নাম কি বলতো?(ওমেরা জানে দাদার নাম)
— কেন? আব্দুল মান্নান মতিন।
তাহলে তোমার নামের সাথে দাদার নামের পরিচয় নেই কেন? তোমার নাম তো হওয়ার কথা ইব্রাহিম খলিল মতিন অথবা ইব্রাহিম খলিল মান্নান।

ওমেরার কথা শুনে ওর বাবা হা হয়ে থাকে, ওকে কোলে নিয়ে বলে,
— ওরে আমার বুদ্ধিমতী ওমেরা মামনি

লেখকঃ সাহিত্যিক, কলামিস্ট ও প্রাবন্ধিক
ই ডাকঃ rbabygolpo710@gmail.com

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here