ডেস্ক রিপোর্ট::  মানুষের দুয়ারে দুয়ারে বা মসজিদের সামনে গিয়ে ভিক্ষা করার পুরোনো পদ্ধতি বাদ দিয়ে এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিক্ষা করছে আরব আমিরাতের ভিক্ষুকরা।

আমিরাতের আবুধাবির পুলিশ সাধারণ মানুষকে সতর্কতা দিয়েছে, রমজান মাসকে লক্ষ্য করে সাধারণ মানুষের সহানুভূতিকে কাজে লাগিয়ে সুবিধা আদায়ের চেষ্টা করছে ভিক্ষুকরা।

ফলে যারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিক্ষা চাইছে তাদের কাছ থেকে রমজান মাসে দূরে থাকার আহ্বান জানানো হয়েছে।

এক বিবৃতিতে পুলিশ বলেছে, “ভিক্ষা জনসাধারণের জন্য একটি উদ্বেগের বিষয়। কারণ ভিক্ষুকরা মসজিদের দরজা, রাস্তায়, মার্কেট, মল এবং অনলাইনে ভিক্ষা চায়”

বিবৃতিতে পুলিশ আরও বলেছে, “ভিক্ষা একটি অসভ্য কাজ। ভিক্ষাকে নির্মূল করতে চলুন একসঙ্গে কাজ করি।”

পুলিশ তাদের সতর্কতা বার্তায় বলেছে, রমজান আসার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভিক্ষার প্রবণতা বেড়েছে। ভিক্ষুককরা ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম এবং হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করে ভিক্ষা করে। তারা সাধারণত খুদেবার্তা, মানবিক ছবি এবং ভিক্ষার বিভিন্ন বাক্য— যেমন এতিমদের সহায়তা, অসুস্থদের চিকিৎসা এবং মসজিদ বানানোর কথা বলে ভিক্ষা করে।

এসব ভিক্ষুকরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বানানো গল্প বলে মানুষের মনকে গলানোর চেষ্টা করে। রমজান আসলেই এই প্রবণতা বৃদ্ধি পায়।

আমিরাতে ভিক্ষা একটি শাস্তিযোগ্য অপরাধ। যদি কাউকে ভিক্ষার সময় ধরা হয় তাহলে তাকে ৫ হাজার দিরহাম জরিমানা এবং তিনমাসের কারাদণ্ড দেওয়ার বিধান রয়েছে। যদি সত্যিকারের ভিক্ষুক না হয়েও কেউ ভিক্ষা করে তাহলে তার বিরুদ্ধে আরও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

সূত্র: গালফ নিউজ

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here