মিনারা হেলেন ইতি/বিপি, নিউ ইয়র্ক থেকে ::
যুক্তরাষ্ট্রের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে প্রচন্ড গরমে বিপর্যস্ত হয়েছে স্বভাবিক জীবনযাত্রা। আরও ৩দিন অর্থাৎ ২৪ জুলাই রোববার পর্যন্ত এ অবস্থা বিরাজ করবে বলে জাতীয় আবহাওয়া পরিষেবা দপ্তর জানিয়েছে। এ খবর জানিয়েছে মার্কিন সংবাদমাধ্যম বাংলা প্রেস।
যুক্তরাষ্ট্রের বার্ষিক তথ্য প্রতিবেদ অনুযায়ী প্রতি বছর গড়ে আনুমানিক ৩৭০ জন তাপজনিত কারণে মৃত্যু ঘটে, যা অন্যান্য মৌসুমের চেয়ে গ্রীষ্মকালে মৃত্যুর হার  প্রায় ২ শতাংশ বেশি।
গতকাল বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে বিশেষ করে নিউ ইয়র্ক, নিউ জার্সি, পেনসিলভানিয়া, ম্যাসাচুসেটস, কানেকটিকাট, ভারমন্ট, রোড আইল্যান্ড, নিউ হ্যাম্পশয়ার ও মেইনে তাপমাত্রা ছিল প্রায় ১০০-১০৬ ডিগ্রি ফারেহাইট এবং এ তাপমাত্রা আরও বেড়ে আগামী রোববার ৯৬ ডিগ্রি ফারেহাইটে ওঠবে, এবং কোনো কোনোদিন তাপমাত্রার অনুভব ১০০ ডিগ্রি ফারেনহাইট ছাড়িয়ে যেতে পারে। জাতীয় আবহাওয়া পরিষেবা দপ্তরের মেটেরিওলজিস্ট মেলিসা ডি স্পিগনা বলেছেন বুধ ও বৃহস্পতিবার হবে নিউ ইয়র্ক সিটিতে সবচেয়ে গরম দিন, যখন তাপমাত্রা ও আদ্রতার আধিক্যের কারণে লোকজন হাঁসফাঁস করবে।
বোস্টন, ফিলাডেলফিয়া ও ওয়াশিংটন ডিসিতেও একই অবস্থা বিরাজ করবে। গরমে কাতর হয়ে পড়া লোকজনকে স্বস্থি দিতে সিটির শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত সরকারি ভবনগুলোতে সিটি কর্তৃপক্ষ সাধারণ মানুষের জন্য গত মঙ্গলবার থেকে কুলিং সেন্টার স্থাপন করতে শুরু করেছে, যা আগামী সপ্তাহের বৃহস্পতিবার পর্যন্ত চালু থাকবে।
স্বাস্থ্য কমিশনার ডাঃ অশ্বিন ভাসান বলেছেন, ‘আমরা কোভিড-১৯ থেকে আমাদের পুনরুদ্ধার অব্যাহত রেখেছি, আমাদের অবশ্যই একটি পরিবর্তিত জলবায়ু এবং উষ্ণায়নের গ্রহের স্বাস্থ্যের প্রভাব মোকাবেলায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ থাকতে হবে, যার প্রভাব সমানভাবে বহন করা যায় না।’ নিউ ইয়র্কবাসীরা শীতাতপনিয়ন্ত্রণ ব্যবহার করেন, একটি কুলিং সেন্টার পরিদর্শন করে বা অন্য কোন শীতল জায়গায় গিয়ে শীতল থাকে যেখানে তারা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। সেখানে যাওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। বন্ধু, পরিবার, বন্ধুবান্ধব এবং প্রতিবেশীদের সাথে যোগাযোগ করে একে অপরের যত্ন নিতেও বলেন তিনি।
নিউ ইয়র্ক শহরের কুলিং সেন্টারগুলো পাবলিক লাইব্রেরিসমূহ, কমিউনিটি সেন্টার, সিনিয়র সেন্টার, সিটির হাউজিং অথরিটির স্থাপনাসমূহে কুলিং সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে, যা অবস্থান সিটির ওয়েবসাইটে ‘লোকেশন ফাইন্ডার’ ভিজিট করে জানা যেতে পারে। বোস্টনেও ১২টি কুলিং সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে, যেগুলো সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সাধারণেল জন্য উন্মুক্ত থাকবে। ওয়াশিংটন ডিসিতেও বেশ কিছু সংখ্যক কুলিং সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে। প্রচন্ড গরমের কারণে জেএফকে এয়ারপোর্ট, লা-গর্ডিয়া এয়ারপোর্ট ও নিওয়ার্ক এয়ারপোর্টে বহু ফ্লাইটের পৌছা ও ছেড়ে যাওয়া বিলম্ব ঘটেছে। বিলম্বের গড় সময় আধা ঘন্টা থেকে ১০০ মিনিট পর্যন্ত।
Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here