ব্রেকিং নিউজ

যানশূন্য রাজধানী, জনমনে আতঙ্ক

স্টাফ রিপোর্টার
ঢাকা : দশম সংসদ নির্বাচনের বর্ষপূর্তিতে উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে মানুষের মাঝে। ৫ জানুয়ারি ভোর থেকেই রাজধানীর রাস্তাঘাট যানশূন্য। মোড়ে মোড়ে রয়েছে পুলিশের ব্যাপক উপস্থিতি।

আওয়ামী লীগ আর বিএনপি- দুই প্রধান রাজনৈতিক শক্তির পাল্টাপাল্টি অবস্থানে ঢাকাবাসীর মনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। রোববার গণপরিবহণে অগ্নিসংযোগ এবং বোমাবাজির ঘটনার পর ঢাকার রাজপথ যেন অনেকটাই নীরব হয়ে পড়েছে।

সচরাচর হরতাল বা অবরোধ ছাড়া রাজধানীতে এমন চিত্র দেখা যায় না। তবে দশম সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের এক বছর পূর্তিতে হানাহানির শঙ্কায় উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে মানুষের মনে। রোববার দিনভর গণপরিবহণে আগুন আর ভাঙচুরের ঘটনায় জনমনে উদ্বেগ আরো বেড়ে গেছে। সোমবার সকাল থেকে রাজধানীর রাস্তাগুলোতে যানবাহন একেবারে নেই বললেই চলে। রিকশা ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা চলাচল করলেও সংখ্যা একেবারেই কম। এতে দুর্ভোগে পড়েছে অফিসগামী লোকজন ও স্কুল-কলেজগামী ছাত্রছাত্রীরা।

মতিঝিল, গুলিস্তান, শাহবাগ, কারওয়ান বাজার, গাবতলী, আজিমপুর থেকে নিউমার্কেট হয়ে মোহাম্মদপুর রুট, গুলিস্তান থেকে কাকরাইল, মালিবাগ, রামপুরা, বাড্ডা এসব রুটে গণপরিবহণ একেবারেই চোখে পড়েনি। সহিংসতা আর জ্বালাও-পোড়াওয়ের ভয়ে প্রাইভেট কারগুলো রাস্তায় বের করার সাহস পাচ্ছে না ঢাকাবাসী।

রাজধানীর রাস্তায় গণপরিবহণের এমন সংকটে অনেককেই হেঁটে কর্মস্থলে যেতে দেখা গেছে। এমন পরিস্থিতিতে অবলম্বন হিসেবে দু-একটি রিকশা পাওয়া গেলেও ভাড়া গুনতে হচ্ছে কয়েক গুণ বেশি।

দেশজুড়ে রাজনৈতিক এ উত্তেজনার মধ্যে বাস ও লঞ্চ চলাচল আকস্মিকভাবে বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে অনেককে। রোববার থেকে রাজশাহী, রংপুর, মুন্সীগঞ্জ, বগুড়া, বরিশাল, ভোলা, চাঁদপুরসহ প্রায় সব রুট থেকেই ঢাকামুখী বাস আর লঞ্চ চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়।

৫ জানুয়ারিকে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ‘গণতন্ত্র রক্ষা দিবস’ আর বিএনপি ‘গণতন্ত্র হত্যা দিবস’ আখ্যা দিয়ে পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ডাকে দুই দল। একই দিন পাল্টা কর্মসূচি পালনে দুই পক্ষের অনড় অবস্থানে রাজনৈতিক অঙ্গনে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া শনিবার রাত থেকে তার গুলশান কার্যালয়ে অবরুদ্ধ রয়েছেন। বিপুলসংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য কড়া নিরাপত্তায় তাকে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন। এর মধ্যে রোববার বিকেল ৫টা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য রাজধানীতে সব ধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করে ডিএমপি। উদ্ভূত পরিস্থিতেতে সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ কর্মসূচি পালন না করার ঘোষণা দেয় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

এদিকে, রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ মোড়গুলোতে বিজিবি, পুলিশ, র‌্যাব গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুলসংখ্যক সদস্য অবস্থান করছেন। জনসাধারণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে টহল দিচ্ছে পুলিশের ভ্রাম্যমাণ টিম।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শিবগঞ্জের জঙ্গি আস্তানা

শিবগঞ্জের জঙ্গি আস্তানা থেকে চারজনের মরদেহ উদ্ধার

স্টাফ রিপোর্টার :: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবপুর উপজেলার শিবনগর গ্রামে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি ...