ইয়ানূর রহমান, যশোর ::

বিএনপি-জামায়াতের ডাকা অবরোধে সোমবারের যশোরের মানুষের জীবনযাত্রা ছিল স্বাভাবিক। এদিন সকাল থেকেই যশোরের বিভিন্ন রুটের যানবাহন যাত্রী নিয়ে চলাচল করেছে। ট্রাক সহ অন্যান্য যানবাহনের চলাচল ছিল স্বাভাবিক।

সকাল ১২টার দিকে শহরের খাজুরা বাসস্ট্যান্ড, পালবাড়ীমোড়, খুলনা বাসস্ট্যান্ড, শার্শার নাভারন, ঝিকরগাছা সহ বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে দেখা যায়, বিএনপির ডাকা অবরোধের কোন চিত্র এ অঞ্চলে ছিল না। সড়ক গুলোতে
রিকশা-ভ্যানসহ বাস, ট্রাক ও ছোট যানবাহন স্বাভাবিকভাবে চলাচল করেছে।

যানবাহনে মানুষের উপস্থিতি ছিল বেশি। প্রয়োজনীয় কাজে মানুষ শহরের মনিহার বাসস্ট্যান্ড ও শংকরপুর বাস টার্মিনালসহ বিভিন্ন স্টপেজে গিয়ে বাসে উঠে নির্ধারিত গন্তব্যে যাচ্ছে। ওইসব স্থান থেকে স্বাভাবিক নিয়মে যাত্রীবাহী বাস যশোরের বিভিন্ন আঞ্চলিক সড়কসহ দূরপাল্লার রুটে চলাচল করেছে। এছাড়া সড়কগুলোতে মালামাল বোঝাই ট্রাকসহ অন্যান্য যানবাহনের চলাচলও ছিল স্বাভাবিক। কোথাও কোন অস্বাভাবিক পরিস্থিতি দেখা যায়নি।

পরিবহণ শ্রমিকরা জানিয়েছে, যশোরের বিভিন্ন আঞ্চলিক রুটসহ দূরপাল্লার রুটে সকাল থেকেই বাস ছেড়ে গেছে। তবে সকালে যাত্রী কিছুটা কম ছিল।

এছাড়া, আঞ্চলিক বিভিন্ন সড়কে সিএনজি ও লেগুনাসহ অন্যান্য যানবাহন যাত্রী বোঝাই করে চলাচল করেছে। শহরতলীর কোথাও অবরোধের প্রভাব দেখা যায়নি। এদিন, অবরোধের পক্ষে পিকেটিং বা বিএনপি নেতাকর্মীদের কোন কর্মকান্ড দেখা যায়নি।

শহরের খাজুরা বাসস্ট্যান্ড, চাঁচড়া চেকপোস্ট, শংকরপুর বাসটার্মিনাল ও মণিহার বাসস্ট্যান্ডসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে সকাল থেকেই পুলিশের উপস্থিতি ছিল। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলায়
প্রস্তুত রয়েছে বলে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

এদিকে, বিএনপির মিডিয়া সেলের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, অবরোধের সমর্থনে রোববার সন্ধ্যায় যশোর-মাগুরা সড়কের অজ্ঞাত স্থানে বিএনপির ও অঙ্গ সংগঠনের উদ্যোগে মশাল মিছিল করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here