মোদিকে তিনদিনের সময় দিলেন মমতা ও কেজরিওয়াল

mamata-kejriwal৫০০ ও ১০০০ রুপি নোট বদলের সিদ্ধান্ত বদলের জন্য ভারতের মোদি সরকারকে তিনদিনের সময়সীমা বেঁধে দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস প্রধান মমতা ব্যানার্জি এবং দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। বৃহস্পতিবার দিল্লির আজাদপুর সব্জি মান্ডিতে আম আদমি পার্টি (আপ)-এর প্রধান অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আমন্ত্রণে একটি জনসভায় যোগ দিয়ে এই হুঁশিয়ারি দিলেন মমতা। বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারকে তোপ দেগে মমতা বলেন, ‘আগামী ৩ দিন সময় দিলাম। এর মধ্যে কেন্দ্রকে নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করতে হবে। না হলে দেশজুড়ে আরও বড় আন্দোলন হবে।’

মোদিকে উদ্যেশ্য করে মমতা বলেন, এটা ইগোর লড়াই নয়। এটা  রুটি রুজির লড়াই, মানুষের লড়াই, দেশকে বাঁচানোর লড়াই। আপনার যদি সাহস থাকে তবে আমাকে জেলেও ভরতে পারেন কিংবা গুলিও করতে পারেন…কিন্তু আমরা আমাদের লড়াই চালিয়ে যাবো। সরকারের বিরুদ্ধে দেশ বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ তুলে মমতা বলেন, নোট বাতিলের এই সিদ্ধান্ত দেশকে আরও শত বছর পিছিয়ে নিয়ে গেছে। এমনকি ১৯৭৫ সালে জরুরী অবস্থাতেও এই পরিস্থিতি তৈরি হয় নি। তারা আমাদের দেশকে বিক্রি করে দিতে চায়। তারা সংবিধানকে ভেঙে দিতে চায়। এই অবস্থা কিছুতেই চলতে দেওয়া যাবে না।

দিল্লির সভা থেকে এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সরাসরি তোপ দেগে মমতা বলেন, ‘সবাই চোর আর শুধু তুমিই (মোদি) সাধু’? তাঁর অভিযোগ প্রধানমন্ত্রী দেশের থেকে বিদেশে থাকেন বেশি। তাই দেশের চেয়ে বিদেশ নিয়েই বেশি ভাবেন। দেশের অর্থনীতি নিয়ে তারা কতটুকু জানেন? দেশে মানুষ মারা যাচ্ছে আর তারা বলছে কালো রুপির ওপর এটা ‘সার্জিক্যাল স্ট্রাইক’। প্রধানমন্ত্রীর উচিত সাধারণ মানুষের দুর্ভোগের কথা অনুধাবন করা। মমতা জানান তিনিও কালো রুপির বিরুদ্ধে কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের এই নীতি তিনি কিছুতেই সমর্থন করেন না।

ওই একই সভা থেকে মোদিকে নিশানা করেন আপ প্রধান অরবিন্দ কেজরীওয়ালও। নোট বাতিলের সিদ্ধান্তকে স্বাধীন ভারতের সবচেয়ে বড় দুর্নীতি বলে অভিহীত করে কেজরিওয়াল বলেন ‘তিন দিনের মধ্যে নোট বদলানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করুন…মানুষের ধৈয্যের পরীক্ষা নেবেন না..নাহলে সাধারণ মানুষ বিদ্রোহের পথে নামবে।  নোট বদলের সিদ্ধান্তে গোটা ভারত জুড়ে সাধারণ মানুষের প্রাণহানির ঘটনায় মোদি সরকারকে দায়ী করে আপ প্রধান বলেন ‘এই সিদ্ধান্তের ফলে রুপি তোলা ও জমা দেওয়ার লাইনে দাঁড়িয়ে এখনও পর্যন্ত ৪০ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। রুপির জন্য বিয়ে ভেঙে যাচ্ছে। মোদিজির কাছে এটা কি দেশপ্রেম? এতগুলো মানুষের মৃত্যুর ঘটনায় দায় কে নেবে?

ভারত ছেড়ে বিশিষ্ট শিল্পপতি কিংফিসারের মালিক বিজয় মালিয়া পালানোর ঘটনায় মোদিকে নিশানা করে কেজরিওয়াল বলেন সাধারণ মানুষ ব্যাংক ও এটিএম’এর লাইনে দাঁড়িয়ে রয়েছেন আর মালিয়া লন্ডনে বিলাশবতুল জীবন যাপন করছেন।
এদিকে নোট বাতিল ইস্যুতে সংসদের দ্বিতীয় দিনে উত্তপ্ত হয়ে উঠল দেশটির সংসদ। বৃহস্পতিবার ছিল সংসদের শীতকালীন অধিবেশনের দ্বিতীয় দিন কিন্তু কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এদিন সকাল থেকে দফায় দফায় মুলতুবি হয়ে যায় সংসদের দুইটি কক্ষ (রাজ্যসভা ও লোকসভা)। বিরোধী রাজনৈতিক দলের তরফে এই ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতি দাবি করতে থাকে। মোদি সরকার তাদের পছন্দ মতো কিছু মানুষকে নোট বাতিলের খবর আগেই ফাঁস করে দিয়েছিল বলেও অভিযোগ করেছে বিরোধীরা। যদিও সরকারের সিনিয়র মন্ত্রীরা সেই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছেন। শেষ পর্যন্ত আগামীকাল পর্যন্ত মুলতুবী হয়ে যায় সংসদের অধিবেশন।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

লাদাখ সফরে নরেন্দ্র মোদি

ডেস্ক নিউজ :: চীনের সঙ্গে উত্তেজনার মধ্যেই হঠাৎ লাদাখ সফরে গেলেন ভারতের ...

0Shares