ডেস্ক রিপোর্ট::  চুয়াডাঙ্গার দর্শনা থানাধীন সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে ভারতে পাচারকালে ৯৬টি স্বর্ণের বার জব্দ করেছে বিজিবি। এ সময় নাজমুল ইসলাম (৩১) নামে এক পাচারকারীকে আটক করা হয়েছে। তিনি চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা থানাধীন শ্যামপুর গ্রামের আসাদুল হকের ছেলে।

মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) বিকেলে বিজিবির চুয়াডাঙ্গা-৬ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল সাঈদ মোহাম্মদ জাহিদুর রহমান এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে ভারতে স্বর্ণ পাচার করা হবে- এমন সংবাদের ভিত্তিতে সকালে বিজিবির চুয়াডাঙ্গা-৬ ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ সুলতানপুর বিওপির টহল কমান্ডার হাবিলদার মো. আব্দুল হাকিম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে রুদ্রনগর গ্রামে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় নাজমুল নামে এক যুবক মোটরসাইকেলযোগে যাওয়ার পথে গতিরোধ করে বিজিবি। আটক যুবক মোটরসাইকেলটি ফেলে দৌঁড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে বিজিবি সদস্যরা দৌড়ে তাকে আটক করতে সক্ষম হন। পরে মোটরসাইকেলটি তল্লাশি করে এয়ার ফিল্টার বক্সের মধ্যে অভিনব কায়দায় লুকায়িত অবস্থায় স্কচটেপ দিয়ে মোড়ানো সাতটি প্যাকেট থেকে ছোট বড় ৯৬টি স্বর্ণের বার জব্দ করা হয়। যার ওজন ১৬ কেজি ১৪ গ্রাম।

বিজিবির চুয়াডাঙ্গা-৬ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল সাঈদ মোহাম্মদ জাহিদুর রহমান বলেন, জব্দকৃত স্বর্ণের বারগুলোর আনুমানিক বাজার মূল্য ১৬ কোটি ১৫ লক্ষ টাকা। আটক যুবককে দর্শনা থানায় হস্তান্তরসহ বিজিবির পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়েছে। এছাড়া জব্দকৃত স্বর্ণের বারগুলো চুয়াডাঙ্গা ট্রেজারি অফিসে জমা দেওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here