স্টাফ রিপোর্টার:: শরণখোলায় সম্পত্তি নিয়ে বিরোধের জেরে নিজের মেয়ের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টার মামলা দায়ের করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রয়াত সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির বাবুলের স্ত্রী হেনা কবির। অপরদিকে বাবার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করতে সার্থান্বেসী মহলের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন হেনা কবিরের মেয়ে মামলার আসামি সাদিয়া সুলতানা বিথি।

রোববার সকাল ১০টার দিকে শরণখোলা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে সাদিয়া সুলতানা বিথি জানান, তার বাবার মৃত্যুর পরে তারা দুই বোন তানিয়া আক্তার সাথী ও তিনি হেবা দলিল অনুযায়ী পাঁচরাস্তার মোড়ে বাবুল সুপার মার্কেটের দোকান ভাড়া দিয়ে ভোগ দখল করে আসছেন। কিন্তু একটি স্বার্থান্বেষী মহল ও তার বোন জামাই মন্জুরুল ইসলাম মার্কেটটি এককভাবে দখল করতে বিভিন্ন ষড়যন্ত্র চালান। এ কারণে তিনি একটি মামলা করলে আদালত মার্কেটের উভয় পক্ষকে শান্ত থাকার নির্দেশ দেন। কিন্তু আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে স্বার্থান্বেষীদের ইন্ধনে ১৩ এপ্রিল তার দুই ভাড়াটিয়ার দোকানে হামলা ও লুটপাট চালায় সন্ত্রাসীরা। এ ব্যপারে তার ভাড়াটিয়া ওই সন্ত্রসীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছেন। এ কারণে পারিবারিক বিরোধ সৃষ্টি করে আমার মা হেনা কবিরকে দিয়ে আমিসহ ভাড়াটিয়াদের বিরুদ্ধে পাল্টা একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করিয়েছেন তারা। বাবার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করতে সার্থান্বেসী মহলটির হামলা, মিথ্যা মামলা ও ষড়যন্ত্রে দিশাহারা আমি।

এ ব্যপারে মিসেস হেনা কবির জানান, তার বড় জামাইয়ের টাকা দিয়ে মার্কেট নির্মাণ করা হয়েছে। তাই ওই মার্কেট বড় মেয়ে সাথীকে দিয়ে ছোট মেয়ে বিথিকে অন্য জায়গার জমি দিলেও সে রাজি না হওয়ায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here