ডেস্ক রিপোর্ট::  প্রার্থীদের জমজমাট প্রচারণায় জমে উঠেছে নড়াইল-২ আসনের নির্বাচন। দিন-রাত এক করে প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রার্থীরা। ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট চাচ্ছেন তারা। এদিকে প্রার্থীদের কাছে পেয়ে খুশি ভোটাররা। শান্তিপূর্ণ পরিবেশের ভোট দিতে চান তারা। নির্বাচনকে অবাধ ও সুষ্ঠু করতে কাজ করছে প্রশাসন।

নড়াইল সদর উপজেলার ৮টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা এবং লোহাগড়া উপজেলা নিয়ে গঠিত নড়াইল-২ আসন। এই আসনের মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৬৫ হাজার ৭৩৭ জন। এর মধ্যে নারী ভোটার ১ লাখ ৮৩ হাজার ৭১১ জন, পুরুষ ভোটার রয়েছে ১ লাখ ৮২ হাজার ২৩ জন। বিগত জাতীয় সংসদ নির্বাচনগুলোতে এই আসনটিতে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীরা বরাবর জয়লাভ করেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসন থেকে দ্বিতীয়বারের মতো নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক জনপ্রিয় ক্রিকেট তারকা মাশরাফি বিন মুর্তজা। তার প্রতিদ্বন্দ্বী হয়েছেন ওয়ার্কার্স পার্টির সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট হাফিজুর রহমান ও সাবকে লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ ফয়জুল আমীর লিটুসহ ৭ প্রার্থী। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন এ আসনের প্রার্থীরা। প্রার্থীদের সমর্থনে চলছে মাইকিং। ঝোলানো হয়েছে পোস্টার। এ আসনে প্রচারণায় সবচেয়ে বেশি এগিয়ে রয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী মাশরাফি। তবে প্রতিদ্বন্দ্বীরাও মাঠে রয়েছেন।

ভোটারদের উদ্দেশ্য এক পথসভায় মাশরাফি বলেন, আগামী ৭ তারিখ আপনারা কষ্ট করে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে মূল্যবান ভোটটি দেবেন। আমি নৌকা প্রতীক নিয়ে এসেছি। আমি বিশ্বাস করি আপনারা আমাকে ভোটটা দিয়ে কাজ করার সুযোগ করে দেবেন।

এ আসনে জাতীয় পার্টির মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ বলেন, লাঙন প্রতীকে ভোট দেওয়ার জন্য মানুষ উন্মুখ হয়ে আছে। যদি তারা ভোট দিতে পারে। ইনশাআল্লাহ এ আসনে লাঙলের বিজয়ের সম্ভাবনা রয়েছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ ফয়জুল আমীর লিটু বলেন, যাকে কাছে পাওয়া যাবে মানুষ তাকে ভোট দেবে। সেই হিসেবে ৮ জন প্রার্থীর মাঝে যোগ্য মনে হলে আমাকে ভোট দেবে।

উন্নয়নের কাজ করবেন এমন প্রার্থীকেই শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিতে চান ভোটাররা। প্রথমবারের মতো ভোটার হওয়া তরুণ ভোটারদের উচ্ছ্বাস বেশি।

শিমুল শেখ নামে এক ভোটার বলেন, নড়াইল-২ আসনের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা দেখতেছি জমে উঠেছে। প্রার্থীরা ভোট চাইতে আসতিছে। আমরা চাই একটা সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশের মধ্য দিয়ে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হোক।

মফিজুল ইসলাম প্রিয় বলেন, যে নির্বাচিত হলে আমাদের নড়াইলের সার্বিক উন্নয়ন করতে পারবে আমি তাকেই ভোট দেব।

রোহান নামে একজন নতুন ভোটার বলেন, এবার আমি প্রথমবারের মতো ভোট দেব। আমি চাই যেন আমার জীবনের প্রথম ভোটটা সুষ্ঠুভাবে দিতে পারি।

নড়াইল-২ আসনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ আশফাকুল হক চৌধুরী জানান, এদিকে নির্বাচনী আচারণ বিধিমালা লঙ্ঘনের দায়ে ইতোমধ্যে এ আসনের নৌকার প্রার্থী মাশরাফি বিন মুর্তজাসহ চা প্রার্থীর প্রতিনিধিকে জরিমানা করা হয়েছে। শান্তিপূর্ণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত করতে সব রকম প্রস্তুতি রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here