ডেস্ক রিপোর্ট: : বাংলাদেশ দূতাবাসের পাসপোর্ট নবায়নে হয়রানি এবং দালালদের দৌরাত্ম্য ঠেকাতে মালয়েশিয়ায় নেয়া হয়েছে নতুন পদক্ষেপ। বাংলাদেশ দূতাবাসে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে এ সুখবর দিয়েছে দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের নতুন রাষ্ট্রদূত মো. গোলাম সারোয়ার। নতুন এ পদ্ধতি চালু হওয়ায় খুশি প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

মালয়েশিয়ায় অবৈধভাবে থাকা শ্রমিকদের বৈধ প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে বাংলাদেশ হাইকমিশনে নতুন পাসপোর্টের আবেদন বেড়েছে আগের চেয়ে কয়েক গুণ বেশি। এমন সময়ে প্রবাসীদের হয়রানি বন্ধে বৈশ্বিক মহামারিতেও প্রবাসীদের সেবা দিতে নেয়া হয়েছে নতুন উদ্যোগ।

আগামী সপ্তাহ থেকে কুয়ালালামপুরের বাইরে থাকা প্রবাসীদের পাসপোর্ট নবায়ন সময়োপযোগী করতে স্থানীয় পোস্ট অফিস ‘পোস্ট লাজু’র সঙ্গে আলোচনা করছে বাংলাদেশ দূতাবাস। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী সপ্তাহ থেকে পোস্ট অফিসের মাধ্যমে নবায়নকৃত পাসপোর্ট প্রবাসীদের হাতে পৌঁছে যাবে বলে আশা করছেন মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের হাইকমিশনার মো. গোলাম সারোয়ার।

বাংলাদেশ দূতাবাসের হাইকমিশনার মো. গোলাম সারোয়ার বলেন, যেখানে বেশিসংখ্যক বাংলাদেশিরা বসবাস করেন সেই জায়গার নিকটস্থ পোর্স্ট অফিসে পাসপোর্টগুলো পাঠানো হবে। যাতে  করে কষ্ট করে আপনাদের দূতাবাসে আসতে হবে না। এতে অর্থ অপচয় হবে না এবং রাস্তাঘাটে হয়রানির শিকারও হবেন না আপনারা।

করোনার বিধিনিষেধের মধ্যেই অনেক প্রবাসী বাংলাদেশি নবায়নকৃত পাসপোর্ট হাতে না পাওয়ার শঙ্কায় থাকলেও দূতাবাসের এ নতুন উদ্যোগে খুশি তারা।

প্রবাসীদের সমস্যা নিরসনে স্থানীয় পোস্ট অফিস ‘পোস্ট লাজুর’ এ সেবার কারণে হয়রানি বন্ধ হবে বলে মনে করেন প্রবাসীরা।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here