ব্রেকিং নিউজ

মানবতার সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন রোটারিয়ান ইসমাইল হোসেন সিরাজী    

মো: শাহীন :: রোটারি ক্লাব অব শ্যামলী এর সভাপতি ইসমাইল হোসেন সিরাজী, রোটারি ক্লাবের বর্ষ  পূর্তিতে উপলক্ষ্যে  ৭০০ জন দুস্থ ও অসহায় মানুষের মাঝে মাঝে খাদ্য বিতরণ করেন। দুস্থ শিশুদের মাঝেও খাদ্য বিতরণ করেন।

শুক্রবার (৩ জুলাই) রোটারিয়ান ইসমাইল হোসেন সিরাজী, পথ শিশুদের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেন।

সুবিধাবঞ্চিত মানুষের সাহায্য প্রক্রিয়া ও বন্টন পদ্ধতি  প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে রোটারি ক্লাব অব শ্যামলী এর সভাপতি ইসমাইল হোসেন সিরাজী বলেন, ক্লাবের অন্যান্যদের সহযোগিতায় সুন্দরভাবে কাজটি করা গেছে। আমরা নিজস্ব প্রতিনিধিদের দিয়ে সমাজের প্রকৃত অসাহায়দের পাশে দাড়িয়েছি। মানবিক এই উদ্যোগে এগিয়ে আসার জন্য তিনি সমাজের বিত্তবানদের আহবান জানান।

রোটারি ক্লাব অব শ্যামলী সভাপতি বলেন, আমরা দুস্থ শিশুদের জন্য স্কুল, দুস্থ নারীদের জন্য সেলাই প্রশিক্ষণ এবং সিরাজগঞ্জের কয়টি স্কুলে নিজ উদ্যোগে গভীর নলকূপ স্থাপন করে শিশুদের বিশুদ্ধ পানি পান করার ব্যবস্থা করেছি।

রোটারিয়ান ইসমাইল হোসেন সিরাজী একজন সমাজ হিতৈষী এবং দরিদ্র্যদের মাঝে শিক্ষা সম্প্রসারনে তার ভূমিকা অনেক। তিনি অবহেলিত তেলেগু সম্প্রদায়ের জন্য প্রতিষ্ঠিত  স্কুলের অন্যতম প্রতিষ্ঠা।

এছাড়াও তিনি অনেক সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছেন। তিনি সিরাজগঞ্জের কয়েকটি উপজেলায় করোনাকালীন সময়ে কয়েক হাজার ফুডব্যাগ বিতরণ করেন। এই মহতি কাজের মূল উদ্যোক্তা ছিলেন ইসমাইল হোসেন সিরাজী।ইসমাইল হোসেন সিরাজী ২০২০-২১ রোটারি বর্ষের একজন সফল প্রেসিডেন্ট।

তিনি জানান, তার প্রেসিডেন্ট মেয়াদকালে নিজেকে সামাজিক উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে নিয়োজিত রাখবেন।

রোটারি ক্লাব অব শ্যামলী এর সভাপতি  ইসমাইল হোসেন সিরাজী আরও বলেন, আমাদের ক্লাব হতে এ পর্যন্ত  কয়েক হাজার মানুষকে বিভিন্নভাবে সহায়তা করা হয়েছে। ভবিষ্যতেও এই সহযোগিতার হাতকে সম্প্রসারিত করা হবে। বরাবরের মত আমি আমার ডিসট্রিবিউশন টিমের সাথে বসে পুরো এলাকার মানুষের অবস্থা পর্যালোচনা করেছি। পর্যালোচনায় দেখা গেছে- অতীতে অন্যান্য যারা ত্রাণের কাজটি করেছিলেন তারা কেউই মেইন রাস্তা থেকে খুব বেশি ভিতেরে মানুষকে সহায়তা দিতে যাননি। ফলাফল হল খুব বেশি ভেতরে বিপন্ন মানুষেরা কিছুই পাননি এতদিন। অধিকাংশের অবস্থা ভয়াবহ। একটি বড় অংশের মানুষের দুর্ভোগ সীমাহীন।

বাস্তব অবস্থার ধারনা পাবার জন্য ছবির বিকল্প নাই। আমরা শুধু বিপন্ন মানুষকে খাদ্য সহযোগিতা দিয়ে এই কাজটি শেষ করতে চাই না ।খাদ্য সহযোগীতার পাশাপাশি ভবিষ্যতে কি করা যায় সেটি নিয়েও ভাবছি। সমাজের বিত্তবানদের  আহ্বান জানাচ্ছি, আসুন একসাথে বিপন্ন এই মানুষগুলোর পাশে দাঁড়াই। মানুষ হিসেবে এটা এখন আমাদের কর্তব্য। মহান আল্লাহ আমাদের সহায় হোন।

এছাড়া, রোটারী জেলা গভর্নর ৩২৮১ বাংলাদেশ এর বর্তমান গভর্নর রুবাইয়াত হোসেন পহেলা জুলাই  ২০২০-২১ রোটারি ইয়ারের শুরুতে ২৪০টি রোটারি ক্লাবের মাধ্যমে প্রায় ৩০ হাজার লোকের মাঝে খাদ্য বিতরণ করেন।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কলি শরিফ’র কবিতা ‘অনুভুতি’

অনুভুতি -কলি শরিফ . ভালবাসা তুমি নও তো কোন গান, কাব্য, কবিতা, ...