ব্রেকিং নিউজ

মন্ত্রী-মেয়রের দ্বদ্ধে ৪শ ইজিবাইক আটক

মন্ত্রী-মেয়রের দ্বদ্ধে ৪শ ইজিবাইক আটক: ব্যাটারী চুরিরবীন্দ্র নাথ পাল : পৌরমেয়র ও ধর্মমন্ত্রীর রশি টানাটানিতে শহরের গরীব মানুষের প্রায় ৪শ ইজিবাইক ৩মাস যাবৎ আটক থাকায় প্রায় এক হাজার পরিবার নিদারুন কষ্টে জীবনযাপন করছে। আটককৃত ইজিবাইকের মুল্য প্রায় ৬/৭ কোটি টাকা।

৩ মাস যাবৎ ইজিবাইকগুলো পুলিশলাইনে আটক থাকায় গাড়ীগুলো শুধু চলাচলের অযোগ্যই হয়নি,সাথে সাথে গাড়ীর প্রায় ৫লাখ টাকার মালামাল চুরি হয়ে গেছে বলে ইজিবাইক চলাকরা অভিযোগ করেছেন। এগুলো যদি নিযিদ্ধই হয়,তবে আমদানী হয় কিভাবে?

সুত্রজানায় জেলা আওয়ামীলীগ দ্বিধাবিভক্ত হওয়ায় মন্ত্রী ও মেয়রের মধ্যে একটি স্নায়ু যুদ্ধ চলছে।

এ ব্যাপারে ইজিবাইক চালকরা মন্ত্রী,বিরোধী দলের নেত্রী ও মেয়রের কাছে বার বার দৌড়াদৌড়ি করলেও একে অপরের কাঁধে দোষ চাপিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল করছে। শীলে পাটায় ঘষাঘষিতে মরিচের জান শেষ হবার পথে। ইজিবাইক চালক ও মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ ধর্মমন্ত্রী আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সাথে দেখা করলে তিনি নেতৃবৃন্দকে বলেন, আমি গাড়ী ধরাইনি, আমি ছাড়াতেও পারবো না।

এদিকে বিরোধী দলের নেত্রী বেগম রওশন এরশাদের সাথে ইজিবাইক চালক ও মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দ দেখা করে তাদের দু:খ দুর্দশার কথা জানালে তিনি বিষয়টি দেখার জন্য পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত সুপারিশ করেন। তারপরেও বিষয়টির সুরাহা না হবার পিছনে ইজিবাইক চালক ও মালিক সমিতি এটিকে মন্ত্রী ও মেয়রের

দ্বদ্ধ বলে ধারনা করছেন। তাদের ধারনা মেয়রকে বেকায়দায় ফেলার জন্য এটি করা হচ্ছে। যাতে তার জনপ্রিয়তা হ্রাস পায়। সামনে সিটি মেয়র পদে নির্বাচনকে ঘিরে এটি করা,যাতে মেয়রের জনপ্রিয়তা হ্রাস পায়। এদিকে ৬/৭ কোটি টাকার গাড়ী পুলিশ লাইনে আটক থাকায় ৫/৬ লাখ টাকার ব্যাটারী সহ অন্যান্য মুল্যবান যন্ত্রপাতি রাতের আধারে চুরি হয়ে গেছে।

তাছাড়া ইজিবাইক গুলো এতিমের মত খোলা আকাশের নীচে পড়ে থাকায় সেগুলো এখন নষ্ট হয়ে গেছে। এগুলো ভাঙ্গারী দোকানে বিক্রি করে দেয়া ছাড়া কোন গতি নেই। ইজিবাইক মালিক সমিতি টিআই মাহবুবুর রহমানের উপর তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন,তিনি গোপনে অনেক গাড়ী ছেড়েছেন মোটা টাকা নিয়ে। এনিয়ে জেলা পুলিশ প্রশাসন একটি তদন্ত করে দেখতে পারেন বলে দাবী জানিয়েছেন সমিতির নেতৃবৃন্দ।

আমাদের প্রত্যাশা থাকবে মন্ত্রী ও মেয়রের দ্বদ্ধে সাধারন গরীব ইজিবাইকগুলো চালক মালিকদের হয়রানী না করে এ ব্যাপারে পুলিশ প্রশাসন মন্ত্রী ও মেয়রের সাথে আলোচনা করে একটি যুক্তিসঙ্গত পদক্ষেপ গ্রহন করতে পারেন।

Print Friendly, PDF & Email
0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ইনজেকশন দেয়া গরু চিনবেন যেভাবে

ষ্টাফ রিপোর্টার ::ঈদুল আজহার আর মাত্র ক’দিন বাকি। ঈদুল আজহা মূলত মহান ...