মোঃআশরাফুল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি ::
চাঁপাইনবাবগঞ্জে জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী ছাড়া অন্য কেউ মনোনয়ন পত্র জমা দেননি।  বিএনপির এক নেতাসহ আরো তিনজন মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করলেও শেষ দিন কেউই মনোনয়ন পত্র জমা দেননি। বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোতাওয়াক্কিল রহমানের কাছে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেন, আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমীন। ফলে একক প্রার্থী হওয়ায় চেয়ারম্যান পদে ভোটের আর প্রয়োজন পড়বে না। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী হওয়ার পথে আওয়ামীলীগের এ নেতা। 
জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে জানা যায়, মনোনয়ন পত্র উত্তোলন করেছিলেন, জেলা যুবলীগের বহিস্কৃত সভাপতি সামিউল হক লিটন, বিএনপির থেকে আওয়ামীলীগে যোগ দেয়া গোমস্তাপুর উপজেলার আওয়ামীলীগ নেতা খুরশিদ আলম বাচ্চু। এছাড়াও মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সাবেক সভাপতি ও বিএনপি নেতা আব্দুল ওয়াহেদ ।
মনোনয়ন পত্র জমা না দেওয়ার কারন জানতে যোগাযোগ করা হলে বিএনপি নেতা আব্দুল ওয়াহেদ জানান ‘‘আমার দল বিএনপি যেহেতু নির্বাচনে অংশগ্রহন থেকে বিরত আছে, তাই দলের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে আমি মনোনয়ন পত্র জমা দেয়নি।’’
মনোনয়ন জমা দেওয়া আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমীন প্রতিক্রিয়ায় বলেন, একটা কথা আজ বলতে চাই, জেলা পরিষদ হবে জনগনের প্রতিষ্ঠান। আমি শেষ দিন পর্যন্ত মানুষের কল্যাণেই কাজ করে যেতে চাই।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা পরিষদ নির্বাচনে সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা মোতাওয়াক্কিল রহমান জানান, চেয়ারম্যান পদে চার জন মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করলেও একজন মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এখন নিয়ম অনুযায়ী যদি যাচাই বাছাইয়ে তার প্রার্থীতা বহাল থাকে, তাহলে একমাত্র বৈধ প্রার্থী হিসাবে ঘোষনা করা হবে। সে ক্ষেত্রে ওই পদে কোন ভোট গ্রহনের প্রয়োজন পড়বে না।
তিনি আরো জানান, নির্বাচনে সংরক্ষিত সদস্য পদে ৬ জন, সাধারন সদস্য পদে ২৯ জন তাদের মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন। আগামী ১৮ সেম্পম্বর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দুপুর আড়াইটায় মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাই করা হবে।
Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here