রাকিবুল হাসান, মনপুরা(ভোলা)প্রতিনিধি ::

জাটকা ও মা ইলিশ আহরণ নিষিদ্ধের সময়ে জেলেদের বিকল্প কর্মসংস্থান তৈরির লক্ষ্যে ভোলার মনপুরা উপজেলায় নিবন্ধিত ৮০ জেলের মধ্যে বকনা বাছুর বিতরণ করা হয়েছে।

শনিবার (২২ জুন ) বিকাল ৪টা মনপুরা উপজেলা পরিষদ  চত্বরে উপজেলা মৎস্য বিভাগের আয়োজনে ২০২৩_২০২৪ অর্থ বছরের ইলিশ সম্পদ উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনা শীর্ষক প্রকল্পের বিকল্প কর্মসংস্থানের উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে। প্রতিটি গরুর ক্রয়মূল্য ধরা হয়েছে ৩০ হাজার টাকা।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সিজন সরকার এর সভাপতিত্বে  বিতরণ কার্যক্রমে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত   চেয়ারম্যান জাকির হোসেন মিয়া, বিশেষ অতিথি ছিলেন দক্ষিণ সাকুচিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অলিউল্লাহ কাজল,কৃষি কর্মকর্তা আহসান তাওহীদ প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলার চেয়ারম্যান জাকির হোসেন মিয়া বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সকল খাতের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর নজর রয়েছে। যখন  ইলিশ ধরা বন্ধ থাকে, তখন জেলেরা বিকল্প জীবিকার মাধ্যমে বেঁচে থাকতে পারেন সেই জন্য এই গরু বিতরণ করা হয়েছে। গরু বিক্রি না করে পালন করে স্বাবলম্বী হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সিজন সরকার বলেন, এই অর্থ বছরে ৮০ জনকে বকনা বাছুর প্রদান করা হয়েছে। এর আগে আরও ৫০ জন জেলেকে দেওয়া হয়েছিল। এই অর্থ বছরে বরাদ্দ প্রাপ্তি সাপেক্ষে তালিকাভুক্ত সর্বমোট ১৩০জনকে বকনা বাছুর দেওয়া হয়েছে। মনপুরায় ১০ হাজার ৪শত ৫৬ জন নিবন্ধিত জেলে রয়েছে।পর্যায়ক্রমে সবাইকেই বিকল্প কর্মসংস্থানের আওতায় আনা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here