ঘন কুয়াশা
মতি গাজ্জালী

ভূগর্ভস্থ প্লেটগুলো যখন নড়েচড়ে ওঠে; প্রলয় রেখে যায় ধ্বংস;
কান্না আর অশ্রু।
অগ্নিগিরিগুলো জেগে ওঠলে; ভয়ানক ধস নামে জনপদে।
আর শাসনের নর্মগুলো চ্যুত হলে সমগ্র দুনিয়া ত্রস্ত থাকে।

কোন্ ফাঁকে কোন্ বাঁকে রক্তনদী বয়;
ভাঙচুর হয় বসতবাটি; শিশুর আগাম মৃত্যু হয়,
পরাজয় শুধু রাষ্ট্রের নয়; মানবজাতিরও হয়।
কেউ যেনো কারো নয়; সবই ফেসিস্ট নাজী হয়।

যেখানে চোখ ফেলবে; দেখবে শত্রু শত্রু খেলা,
মানুষের অবহেলা মানুষই করে; নিত্য চরাচরে,
ঘরে ঘরে উৎকণ্ঠা উদ্বিগ্নতা আর রোনাজারি,
ভারী হয় কান্নায় আকাশ বাতাস; উদ্ধারে নেই নূহ’র তরী,
বুক ভরী নেবে শ্বাস; কোথায় শাসনে দেখছো বিশ্বাস!
আশ নেই; নিরাশ এক পৃথিবী দাঁড়িয়ে অসহায়,
নেই উপায়; প্রাণ সব নিরুপায় হেথায় সেথায়।

আয় আয় চাঁদ মামা, আয় রে কোটি তারার জ্যোতি,
জ্ঞাতি নেই আকাশ ছাড়া, সূর্য ছাড়া এই পৃথিবীর।
আমীর বলো দীনহীন বলো; রাজারা আছে বেশ,
খেশ নেই কারো; টুটি চেপে ধরো একে অপরের,
ভেতরের ভাঙন, বুকের কাঁদন চলছে চলবে অবিরত,
বিরত কেউ নয় আস্ফালন থেকে; সকলের ঘাড় গেছে বেঁকে,
দেখে দেখে তা; ঈশ্বর হতাশ।

মানুষ কেবলই পোড়ে মানুষের আগুনসময়ে,
সয়ে সয়ে যায়; তবুও বাঁচার স্বপ্ন হারায়,
মাড়ায় পায়ে দলে মানুষ মানুষের শেষ ভরসা,
আশাহীনের এই সবুজ ধরণী; ডুবাইছে ঘন কুয়াশা।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here