ডেস্ক নিউজ :: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাথে ভিডিও কলে কথা বলার ইচ্ছা প্রকাশ করে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন (অটিস্টিক) কিশোরী মামিজা রহমান রায়া নামের এক কিশোরী সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়েছিল ৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই পোস্টে সাড়া দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কিশোরীটির সাথে ভিডিও কলে কথা বলেন।

বৃহস্পতিবার বিকালে রায়ার মা নাবিহা রহমান পিংকীর মোবাইলে ভিডিও কল করেন প্রধানমন্ত্রী।

রায়ার মা জানান, হঠাৎ প্রধানমন্ত্রীর কল পেয়ে তিনি হতবিহবল হয়ে পড়েন। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিক আচরণে তার মনে হয়নি তিনি সরকার প্রধানের সঙ্গে কথা বলছেন, বরং তার মনে হয়েছে তিনি তার মা কিংবা ফুপির সঙ্গে কথা বলছেন।

তিনি জানান, রায়া ভিডিও কলে প্রধানমন্ত্রীকে জাতীয় সংগীত গেয়ে শুনিয়েছে। প্রধানমন্ত্রীও রায়ার সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়েছেন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীকে একটি কবিতা আবৃত্তি করেও শুনিয়েছে রায়া। বেশ কিছু সময় ধরে রায়ার থেকে গল্পও শুনেছেন প্রধানমন্ত্রী। রায়ার মা আরো জানান, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, করোনা পরিস্থিতি ভালো হলে রায়া তার বাসায় গিয়ে দেখা করবে।

এদিকে কিশোরীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কলে কথা বলার বিষয়টি ইতোমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

এই ঘটনাটি নিয়ে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপিকা অপু উকিল তার ফেসবুক আইডিতে লিখেছেন- ‘নিজের জীবনকে জনগণের জন্য উৎসর্গ করে দিয়ে, যিঁনি প্রতিটি মুহূর্ত, এদেশের মানুষের স্বপ্ন সত্যি করতে চান, ইচ্ছা পূরণ করতে চান, তিঁনি জনকের কন্যা মানবতার বাতিঘর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। একটি কিশোরী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবার আগ্রহ প্রকাশ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলো। মানবিক প্রধানমন্ত্রী সে কথা জানতে পেরে পরম স্নেহে কিশোরীটির সঙ্গে ভিডিও কল করে শত ব্যস্ততার মধ্যেও কথা বলেছেন। তাঁর মমতার আঁচল বিছিয়ে আছে সমগ্র দেশ জুড়ে। শতকোটি সেলুট মাননীয় প্রধানমন্ত্রী।’

এর আগে রায়ার স্কুল শিক্ষক হাসিনা হাফিজ একটি ভিডিও পোস্ট করেন অটিজম ম্যানেজমেন্ট সেন্টার নামে একটি ফেসবুক গ্রুপে। সেখানে রায়া বলে, সে প্রধানমন্ত্রীকে খুব ভালোবাসে ও তার সঙ্গে ভিডিও কলে কথা বলতে চায়। প্রধানমন্ত্রীর হাসি তার প্রিয়। এই ভিডিও পোস্টের একদিনের মাথায় রায়াকে ভিডিও কল দেন প্রধানমন্ত্রী।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here