ডেস্ক রিপোর্ট : : প্রতিযোগিতা আইন লংঘন করায় ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে ইউনিফর্ম সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স চৌধুরী এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মো. ইব্রাহীম মোল্লাকে ৭৯ হাজার ৮৯৭ টাকা জরিমানা এবং ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজকে ভবিষ্যতে এমন কর্মকাণ্ড থেকে বিরত থাকতে সতর্ক করেছে প্রতিযোগিতা কমিশন।

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) প্রতিযোগিতা কমিশন থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অভিযুক্তরা প্রতিযোগিতা আইন ২০১২ এর ১৫ ধারার ১ উপধারা লংঘন করেছে। সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান চৌধুরী এন্টারপ্রাইজ ২০১৮ থেকে ২০২০ তিন বছরে মোট প্রায় ১ কোটি ২০ লাখ টাকার পোশাক সরবরাহ করেছে। গড় বার্ষিক টার্নওভারের ২ শতাংশ জরিমানা করেছে কমিশন।

অন্যদিকে, ভিকারুননিসা স্কুলের যেহেতু কোনো ব্যবসায়ীক উদ্দেশ্য ছিল না তাই ভবিষ্যতে প্রতিষ্ঠানটিকে কাউকে একচ্ছত্রভাবে দীর্ঘমেয়াদে শিক্ষার্থীদের পোশাক সরবরাহের সুযোগ না দিতে সতর্ক করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, মামলার শুনানিতে চৌধুরি এন্টারপ্রাইজের অস্তিত্বহীন ঠিকানার বিষয়টি উঠে আসে। প্রতিযোগিতা বিরোধী হওয়ায় আগামী ২৩ সালের এপ্রিল মাস পর্যন্ত থাকা পোশাক সরবরাহের চুক্তি বাতিল ও অকার্যকর করার নির্দেশনা দেয়া হয় ভিকারুননিসা স্কুলকে।

এছাড়া কমিশন থেকে স্কুলটির কর্তৃপক্ষকে বেশ কিছু নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেগুলো হলো-

– শিক্ষার্থীদের পোশাকের ধরন, রং, ডিজাইন, মনোগ্রাম অভিভাবকদের জানিয়ে তার নমুনা নির্বাচিত দর্জিকে সরবরাহ করতে হবে।
– প্রত্যেক ক্যাম্পাসের জন্য তিনজন সরবরাহকারী থাকতে হবে।
– কমপক্ষে ২টি জাতীয় পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে সরবরাহকারী নির্ধারণ করতে হবে।
– নির্বাচিত দর্জির দোকানের পোশাকের মূল্য তালিকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দৃশ্যমান জায়গায় টানাতে হবে।
– প্রতিষ্ঠানের যাবতীয় পণ্য ও সেবা কেনায় প্রতিযোগিতা আইন ২০১২ মানতে হবে।

এছাড়া চৌধুরি এন্টারপ্রাইজকে দেয়া নির্দেশনার মধ্যে বলা হয়েছে, আরোপিত জরিমানা মার্চ মাসের মধ্যে সোনালী ব্যাংক শেরাটন কর্পোরেট শাখায় পে-অর্ডারের মাধ্যমে প্রতিযোগিতা কমিশনের অনুকূলে জমা দিতে হবে।

Print Friendly, PDF & Email

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here